আইপিএলের অর্ধেক পুরস্কার একাই জিতলেন বাটলার!

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) শিরোপা না জিতলেও অর্ধেকের মতো পুরস্কার একাই জিতেছেন জস বাটলার। সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের পুরস্কার থেকে শুরু করে এবারের আসরের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় হওয়ার পুরস্কারসহ ৭০ লাখ ভারতীয় রুপি পেয়েছেন রাজস্থান রয়্যালসের ইংলিশ এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার।

এছাড়াও এবারের আইপিএলে চ্যাম্পিয়ন দল গুজরাট টাইটান্স পেয়েছে ২০ কোটি রুপি। রানার্স আপ হওয়া রাজস্থান রয়্যালস পেয়েছে সাড়ে ১২ কোটি রুপি। তৃতীয়তে থাকা রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ৭ কোটি ও লক্ষ্নৌ সুপার জায়ান্টস সাড়ে ৬ কোটি রুপি পেয়েছে।

আইপিএলের ১৫তম আসরে কে জিতলেন কোন পুরস্কার:-

চ্যাম্পিয়ন দল: গুজরাট টাইটান্স, ২০ কোটি রুপি।

রানার্স আপ হওয়া দল: রাজস্থান রয়্যালস, সাড়ে ১২ কোটি রুপি।

তৃতীয় স্থানে থাকা দল: রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু, ৭ কোটি রুপি।

চতুর্থ স্থানে থাকা দল: লক্ষ্নৌ সুপার জায়ান্টস, সাড়ে ৬ কোটি রুপি।

ফেয়ার প্লে ট্রফি: যৌথভাবে গুজরাট টাইটান্স ও রাজস্থান রয়্যালস।

ম্যান অব দা টুর্নামেন্ট: জস বাটলার, ১০ লাখ রুপি (৫৭.৫৩ গড় ও ১৪৯.০৫ স্ট্রাইক রেটে ৮৬৩ রান)।

ম্যান অব দা ফাইনাল (ফাইনালের সেরা): হার্দিক পান্ডিয়া, ৫ লাখ রুপি (৩/১৭ ও ৩৪ রান)।

অরেঞ্জ ক্যাপ (সর্বোচ্চ রান): জস বাটলার, ১০ লাখ রুপি (৮৬৩ রান)।

পার্পল ক্যাপ (সর্বোচ্চ উইকেট): যুবেন্দ্র চাহাল, ১০ লাখ রুপি (২৭ উইকেট)।

ইমার্জিং প্লেয়ার অব দা সিজন (উদীয়মান ক্রিকেটার): উমরান মালিক, ১০ লাখ রুপি (১৪ ম্যাচে ২২ উইকেট)।

লেটস ক্র্যাক ইট সিক্সেস অব দা সিজন: জস বাটলার, ১০ লাখ রুপি (৪৫টি ছক্কা)।

অন দা গো ফোরস অব দা সিজন: জস বাটলার, ১০ লাখ রুপি (৮৩টি চার)।

গেম চেঞ্জার অব দা সিজন: জস বাটলার, ১০ লাখ রুপি (৪টি সেঞ্চুরিসহ ১৪৯.০৫ স্ট্রাইক রেটে ৮৬৩ রান)।

পাওয়ার প্লে অব দা সিজন: জস বাটলার, ১০ লাখ রুপি।

মোস্ট ভ্যালুয়েবল প্লেয়ার অব দা সিজন: জস বাটলার, ১০ লাখ রুপি।

সুপার স্ট্রাইকার অব দা সিজন: দিনেশ কার্তিক, ১০ লাখ রুপি (১৮৩.৩৩ স্ট্রাইক রেটে ৩৩০ রান)।

ফাস্টেস্ট ডেলিভারি অব দা সিজন: লকি ফার্গুসন, ১০ লাখ রুপি (আইপিএল ফাইনালে, ১৫৭.৩ কিলোমিটার ঘণ্টায়)।

ক্যাচ অব দা সিজন: এভিন লুইস, ১০ লাখ রুপি (কলকাতার বিপক্ষে রিঙ্কু সিংয়ের ক্যাচ)।

You May Also Like

About the Author: