বাংলাদেশের তিন ফরম্যাটে ৩টি শক্তিশালী দল ঘোষনা!

বেশ কিছু চমক রেখে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য বাংলাদেশের তিন ফরম্যাটের স্কোয়াড ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পরিবর্তন দেখা গেছে এবারের স্কোয়াডে।

এবারের দল ঘোষণার আগে নির্বাচকরা যে সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ঘেঁটে দেখার পেছনে ব্যস্ত সময় পার করেছেন, তা স্পষ্ট। মাথায় রাখতে হয়েছে চোটের ব্যাপারটিও। হজে যাওয়ার জন্য কোনো ফরম্যাটের দলেই নেই মুশফিকুর রহিম। সাকিব আল হাসানের ছুটির গুঞ্জন থাকলেও তিনি আছেন তিন ফরম্যাটেই। এছাড়া নানা রদবদল আছে ভিন্ন ভিন্ন ফরম্যাটের স্কোয়াডে। ওয়ানডে স্কোয়াডে ফিরেছেন এনামুল হক বিজয়,

সেই সাথে তাকে রাখা হয়েছে টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডেও। চোট কাটিয়ে দীর্ঘদিন পর মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও ফিরেছেন সীমিত ওভারের দুই ফরম্যাটে, যিনি মাঠের বাইরে ছিটকে যাওয়ার পর কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকেও বাদ পড়েন। এছাড়া সম্প্রতি টেস্ট দলে ফেরা মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলেও প্রত্যাবর্তন ঘটিয়েছেন। তবে ওয়ানডে দল থেকে বাদ পড়েছেন মাহমুদুল হাসান জয়। এই ফরম্যাটে অবশ্য কোনো ম্যাচও খেলা হয়নি তার।

মূলত বিজয় ফেরার কারণেই ওয়ানডে দলের সাথে থাকা হচ্ছে না টেস্ট দলে নিজেকে প্রায় প্রতিষ্ঠিত করে ফেলা এই তরুণের। খালেদ আহমেদও বাদ পড়েছেন ওয়ানডে দল থেকে। তবে সবচেয়ে বেশি কপাল পুড়েছে নাঈম শেখের। টি-টোয়েন্টি দলে সর্বশেষ সিরিজ খেলা মুনিম শাহরিয়ার জায়গা ধরে রেখেছেন। বিজয়কে জায়গা করে দিতে গিয়ে বাদ পড়েছেন নাঈম শেখ, টি-টোয়েন্টিতে যার ব্যাটিং নিয়ে সমালোচনা হচ্ছিল।

তাসকিন আহমেদ টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলে নেই, কারণ এই দুই সিরিজ চলাকালে পুরো ফিট তাসকিনকে পাওয়ার সম্ভাবনা কম। তবে ওয়ানডে সিরিজে রাখা হয়েছে এই তারকা পেসারকে। এদিকে ইঞ্জুরির কারণে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ হাতছাড়া করে মেহেদী হাসান মিরাজ টেস্ট ও ওয়ানডে দুই ফরম্যাটের দলেই আছেন। নুরুল হাসান সোহান ফিরেছেন ওয়ানডে দলে; আছেন টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতেও। চট্টগ্রাম টেস্টে চোট পাওয়া নাঈম হাসান ক্যারিবীয় সিরিজ থেকেও ছিটকে গেছেন।

সবচেয়ে বড় চমক ধরা যায় তিন ফরম্যাটে মুস্তাফিজুর রহমানের অন্তর্ভুক্তিকে। সাম্প্রতিক সময়ে সবচেয়ে আলোচিত এই বিতর্কের অবসান ঘটেছে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টির মত ক্যারিবীয় সফরে টেস্ট সিরিজও খেলবেন মুস্তাফিজ, যিনি সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে।

টেস্ট দল মুমিনুল হক (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, মাহমুদুল হাসান, নাজমুল হোসেন, সাকিব আল হাসান, লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন, ইয়াসির আলী, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ, ইবাদত হোসেন, খালেদ আহমেদ, রেজাউর রহমান, শহীদুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, নুরুল হাসান।

ওয়ানডে দল তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল হোসেন, সাকিব আল হাসান, ইয়াসির আলী, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন, নুরুল হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, শরীফুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান, ইবাদত হোসেন, নাসুম আহমেদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, এনামুল হক।

টি-টোয়েন্টি দল মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), মুনিম শাহরিয়ার, লিটন দাস, এনামুল হক, সাকিব আল হাসান, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক, নুরুল হাসান, ইয়াসির আলী, মেহেদী হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, শরীফুল ইসলাম, শহীদুল ইসলাম, নাসুম আহমেদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন।

You May Also Like

About the Author: