দুই পরিবর্তন নিয়ে আগামীকালের ম্যাচের জন্য শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শক্তিশালী একাদশ ঘোষণা করলো বাংলাদেশ

বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজ: ইতিমধ্যে ড্র হয়েছে প্রথম টেস্ট ম্যাচ। তাই ২য় টেস্ট ম্যাচ দুই দলের জন্য অলিখিত ফাইনাল হয়ে দাড়িয়েছে। তবে এখানে বড় প্রশ্ন হলো বাংলাদেশের একাদশ কেমন এই ঢাকা টেস্টে। কেননা চট্টগ্রামের উইকেটের সাথে মিরপুরের উইকেটের বিস্তর ফারাক থাকায় লঙ্কানদের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে বাংলাদেশ দলের পরিকল্পনাও থাকতে পারে ভিন্ন। বিশেষ করে বোলিং বিভাগে পরিবর্তন আসছে সেটা এক রকম নিশ্চিত।

ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশ দলের একাদশে কি ধরণের পরিকল্পনা নিয়ে একাদশ সাজাতে পারে তা এবার দেখে নেয়া যাক।

ব্যাটিং বিভাগে ইনিংস ওপেনিয়ে আসছে না কোনো পরিবর্তন। ওপেনিংয়ে দেখা যাবে তামিম ইকবাল এবং মাহমুদুল হাসান জয়কে। প্রথম ম্যাচে দলকে দুর্দান্ত শুরু এনে দেয়া জয়-তামিম জুটি মিরপুরের উইকেটেও দলের আশীর্বাদ হয়ে আসতে পারে।

তিন ও চার নম্বরে দেখা যাবে নাজমুল হোসেন শান্ত ও অধিনায়ক মুমিনুল হককে। যদিও গত ম্যাচে ব্যাট হাতে দুজনই ব্যর্থ ছিলেন। মিরপুরে ব্যাট হাতে তাই আবারও জ্বলে উঠতে পারেন তারা।

দলের দুই সিনিয়র ক্রিকেটার সাকিব-মুশফিক ব্যাটিং বিভাগে শক্তি বাড়ানোর সাথে লিটন দাস রয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে। ফলে ব্যাটিং অর্ডারে পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা নেই।

বোলিং বিভাগে একাধিক পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে সেটা নিশ্চিত। পেসার শরিফুল ইসলাম ইনজুরিতে পড়ে প্রথম টেস্টে দ্বিতীয় ইনিংসে বল করতে পারেননি। শতভাগ ফিট না হওয়ায় সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের স্কোয়াডে রাখা হয়নি তাকে।

অন্যদিকে মিরপুরের উইকেট স্পিনারদের স্বর্গরাজ্য হলেও প্রথম টেস্টের সেরা স্পিনার নাইম হাসানকে একাদশে পাচ্ছে না টাইগাররা। ইনজুরিতে পড়ে দ্বিতীয় টেস্টের স্কোয়াড থেকে ছিটকে গেছেন তিনিও।

মিরপুরের উইকেটে একাদশে তিনজন স্পিনার খেলানোর পরিকল্পনা করা হতে পারে। তাই মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে দেখা যেতে পারে একাদশে। সেই সাথে শরিফুলের পরিবর্তে দেখা যেতে পারে এবাদত হোসেনকে।

দুই দলের মধ্যকার দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি শুরু হবে আগামীকাল (২৩ মে) সকাল ১০টায়।

এক নজরে দেখে নেয়া যাক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের সম্ভাব্য সেরা একাদশ

তামিম ইকবাল, মাহমুদুল হাসান জয়, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, তাইজুল ইসলাম, এবাদত হোসেন এবং খালেদ আহমেদ।

You May Also Like

About the Author: