ম্যাচ সেরা হলেও যে আক্ষেপে পুড়ছেন ম্যাথুস

চট্টগ্রামে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের প্রথম টেস্ট শেষ হয়েছে ড্র’তে। ম্যাচটা ড্র হলেও উত্তেজনা ছিল ক্ষণে ক্ষণে। টস জিতে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কা দ্রুত উইকেট হারালেও আঞ্জেলো ম্যাথুসের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ঘুরে দাঁড়ায় সফরকারীরা।

শত রানের ইনিংসের পর ডাবল সেঞ্চুরির পথে থাকা ম্যাথুস নিখুঁত ব্যাটিংটাই না করেছিলেন এই লঙ্কান ব্যাটার। পৌঁছে যান ডাবল সেঞ্চুরির দোরগোড়ায়। ১৯৯ রানের মাথায় দাঁড়িয়ে যখন ডাবল সেঞ্চুরি উদযাপনের কথা ভাববেন, ঠিক তখনই নাঈম হাসানের বলটা বুঝে ওঠার আগেই ব্যাটে লেগে চলে যায় স্কয়ার লেগে থাকা সাকিব আল হাসানের তালুতে।

১৯টি চার ও ১টি ছক্কা মারলেও বেশ হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়তে দেখা যায় তাকে। হতাশ না হবারও তো কোনো যুক্তি নেই। এমন একটা মুহূর্তে কই উদযাপনে মাতবেন, সেটা না। তাকে সাজঘরে ফিরতে হয় মাথা নিচু করে।

ডাবল সেঞ্চুরি না করতে পারলেও অ্যাঞ্জেলোর হাতে উঠেছে ম্যাচ সেরার পুরষ্কার। তাতেও কী আর সান্ত্বনা পাওয়া যায় এত বড় আক্ষেপের। ম্যাচ শেষে তেমনটাই জানিয়েছেন এই লঙ্কান।

‘সত্যিই হতাশাজনক ছিল, আমার মাত্র একটা রান দরকার ছিল। একটাবার স্ট্রাইক পরিবর্তন করলেই হয়। উইকেটটা ব্যাটিং-বান্ধব ছিল কিন্তু তারা আমাদের এত সহজে রান দেয়নি, ব্যক্তিগতভাবে বলতে গেলে আমাকে খুব কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছিল। আমাকে বেশ মনোযোগ দিতে হয়েছিল। যেখানে মনোযোগ ছাড়া এত রান করা অসম্ভব ছিল। সঙ্গে তাপ এবং আর্দ্রতার সাথে লড়াইটা সহজ ছিল না। তারা সত্যিই ভালো বোলিং করেছে। দারুণ সঙ্গ ছাড়া আপনি ১৯৯ রান পর্যন্ত যেতে পারবেন না। তারাও অনেক পরিশ্রম করেছে আমার জন্য। দুর্ভাগ্য তারা বড় স্কোর পায়নি। আমি আশাবাদী তারা পরের ম্যাচে পাবে।’

Post navigation

You May Also Like

About the Author: