মায়ের চিকিৎসার জন্য গাড়ি বেচে দিলেন ক্রিকেটার শাহাদাত

শাহাদাত হোসেন রাজিব। জাতীয় দলের ডানহাতি পেসার। লম্বা রানআপে বল করে দেশের মানুষের মন জয় করেছিলেন তিনি। নারায়ণগঞ্জে জন্ম নেওয়া এ ক্রিকেটার এক সময় ছিলেন

দেশের ক্রিকেটের ধূমকেতু। কিন্তু নিজের ভুলের কারণে এখন তিনি মাটিতে। সতীর্থ ক্রিকেটারের গায়ে হাত তোলার কারণ সব ধরনের ক্রিকেট থেকে ৫ বছর নিষিদ্ধ হন রাজিব।

শাহাদাত আবারো ক্রিকেটে ফিরতে চান। তার মায়ের জন্য, পরিবারের জন্য, নিজের জন্য। জরায়ু ক্যানসারে আক্রান্ত শাহাদাত হোসেন রাজিবের মা। মায়ের চিকিৎসার জন্য নিজের গাড়িটিও বিক্রি করে দিয়েছেন এ ক্রিকেটার। সম্প্রতি একটি ভিডিও সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানান তিনি।

আপনার এখন চাওয়া কী-এমন প্রশ্নের উত্তরে রাজিব বলেন, আমার এখন একটাই চাওয়া, আমি ক্রিকেটে ফিরতে চাই। আমি আর বেশি দিন হয়তো খেলতে পারব না। এখন যদি আমার বয়স ৩৬ হয়ে থাকে তাহলে আর ৪ বা ৫ বছর

খেলতে পারব। আম্মুর অবস্থা খুবই খারাপ, এ জন্যও খেলতে চাই। এখন আমি অনেক ফিট আছি, পেস আগের মতোই আছে। বোর্ড যদি আমাকে অনুমতি দেয় তাহলে আবার আগের মতো মাঠে ফিরতে পারব।

সাক্ষাৎকারে রাজিব জানান, ২০১৭ সালে হঠাৎ করে তার আম্মু ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানা গেল তার জরায়ু ক্যানসার। তখন চিকিৎসায় অনেকটাই সুস্থ হয়েছিলেন রাজীবের মা। লকডাউনের সময়টাতে তার মা আবারও অসুস্থ হয়ে পড়েন। প্যারালাইজড হয়ে যান। বর্তমানে তার ক্যানসার থার্ড স্টেজে আছে।

চিকিৎসার ব্যয় বহন করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে উল্লেখ করে এ ক্রিকেটার আরও বলেন, আমার এক ভাই জার্মানি থাকে ও সেখান থেকে হেল্প করছে। আর আমার একটি গাড়ি ছিল, আম্মুর চিকিৎসার জন্য সেটি বিক্রি করে দিয়েছি।

বিসিবি যদি আমাকে আবার সুযোগ দেয় তাহলে আমি মায়ের পাশে দাঁড়াতে পারব। আমার তো আর কোনো পেশা নাই। দুই বছর বসে থাকার কারণে কষ্ট বাড়ছে। বিসিবি, কোয়াবের কাছে ক্ষমা চেয়েছি। ইনশাল্লাহ, উনারা বিষয়টি বিবেচনা করে একটি ব্যবস্থা করবে।

খেলা ছাড়া শাহাদাতের কিছুই নেই। তার মায়েরও ইচ্ছা আবারও মাঠে ফিরুক এ ক্রিকেটার। সাজা কমানোর জন্য বিসিবির কাছে আবেদনও করেছেন তিনি। অপেক্ষায় আছে সিদ্ধান্তের। মাঠের ক্যারিয়ারে ৩৮ টেস্টে ৭১ উইকেট, ৫১ ওডিআইয়ে ৪৭ এবং ৬ টি টুয়েন্টিতে ৪ উইকেট পেয়েছিলেন শাহাদাত।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment