ম্যারাডোনার ‘হ্যান্ড অব গড’ জার্সি নিলামে, দেখেনিন কয়টাকা দাম

20220422 214521

নিলামে তোলা হয়েছে দিয়াগো ম্যারাডোনার ‘হ্যান্ড অব গড’ জার্সিটি। বুধবার (২০ এপ্রিল) অনলাইন নিলামে ওঠে ফুটবল ঈশ্বরের বিখ্যাত স্মারকটি, যা চলবে আগামী মাসের ৪ তারিখ পর্যন্ত। এরইমধ্যে অনেক ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান জার্সিটি কেনার আগ্রহ দেখিয়েছে। আয়োজক প্রতিষ্ঠান আশা করছে নিলামে জার্সিটির দাম হতে পারে অন্তত ৪ থেকে ৬ মিলিয়ন পাউন্ড।

সময়ের হিসেবে পার হয়েছে ৩৬ বছরের বেশি। এখনো ছিয়াশির বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যারাডোনার হাতে করা গোলটি উন্মাদনা ছড়ায়। চাতুরি নাকি ফুটবল শৈলী, যে বিতর্কে এখন দুই ভাগে ভাগ পুরো দুনিয়া। পরবর্তীতে সেই গোলটিই আখ্যা পায় ‘হ্যান্ড অব গড’ তথা ঈশ্বরের গোল নামে। ২০০২ সালে ফিফার জরিপে যা শতাব্দীর সেরা গোল হিসেবে নির্বাচিত হয়। এতদিন পর আবারো আলোচনায় ছিয়াশি বিশ্বকাপের সেই ম্যাচ। তবে এবার আর গোলের জন্য নয়, আলোচনায় সেই ম্যাচে ম্যারাডোনার পরা জার্সিটি।

ওই ম্যাচ শেষে ম্যারাডোনা জার্সিটি হাতবদল করেন ইংলিশ মিডফিল্ডার স্টিভ হজের সঙ্গে। পরম মমতায় দীর্ঘদিন জার্সিটি নিজ সংগ্রহেই রাখেন এই মিডফিল্ডার। পরে যা লোন হিসেবে তিনি দান করেন ইংল্যান্ডের জাতীয় ফুটবল জাদুঘরে।

সময়ের হিসেবে পার হয়েছে ৩৬ বছরের বেশি। এখনো ছিয়াশির বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যারাডোনার হাতে করা গোলটি উন্মাদনা ছড়ায়। চাতুরি নাকি ফুটবল শৈলী, যে বিতর্কে এখন দুই ভাগে ভাগ পুরো দুনিয়া। পরবর্তীতে সেই গোলটিই আখ্যা পায় ‘হ্যান্ড অব গড’ তথা ঈশ্বরের গোল নামে। ২০০২ সালে ফিফার জরিপে যা শতাব্দীর সেরা গোল হিসেবে নির্বাচিত হয়। এতদিন পর আবারো আলোচনায় ছিয়াশি বিশ্বকাপের সেই ম্যাচ। তবে এবার আর গোলের জন্য নয়, আলোচনায় সেই ম্যাচে ম্যারাডোনার পরা জার্সিটি।

ওই ম্যাচ শেষে ম্যারাডোনা জার্সিটি হাতবদল করেন ইংলিশ মিডফিল্ডার স্টিভ হজের সঙ্গে। পরম মমতায় দীর্ঘদিন জার্সিটি নিজ সংগ্রহেই রাখেন এই মিডফিল্ডার। পরে যা লোন হিসেবে তিনি দান করেন ইংল্যান্ডের জাতীয় ফুটবল জাদুঘরে।

২০২০ সালে ম্যারাডোনা মারা যাওয়ার পর থেকেই প্রতিষ্ঠানটি পরিকল্পনা করছিল জার্সিটি নিলামে তোলার। তবে মেলেনি হজের অনুমতি। বর্তমানে স্পোর্টস স্মারকের নিলামের বাজার চড়া হওয়ায় এই মৌসুমেই জার্সিটি নিলামের ওঠাতে চেয়েছিলেন হজ। অনলাইনে গত ২০ এপিল শুরু হয় যার কার্যক্রম।

জার্সিটির নিলামকারী সংস্থা সোথেবিসের ধারণা এর দাম উঠতে পারে ৬ মিলিয়ন পাউন্ডের বেশি। এরইমধ্যে অনলাইনে একটি প্রতিষ্ঠান স্মারকটির মূল্য হাঁকিয়েছে ৪ মিলিয়ন পাউন্ড। এ সম্পর্কে সোথেবিসের কর্মকর্তা ব্রাহাম ওয়াচার বলেন, সত্যি বলতে জার্সিটি নিয়ে দর্শকদের তুমুল আগ্রহ আমাদের একটু বেশিই অবাক করেছে। বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান জার্সিটি কিনতে তাদের আগ্রহ দেখিয়েছে। তবে এখনও সময় আছে। আমরা আশা করছি এর মূল্য ক্রমশই বাড়বে।

সোথেবিস সংশ্লিষ্টরা বলছেন, জার্সিটি নিলাম মঞ্চে ওঠানোর আগে সঠিক যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। ১৯৮৬ সালের ম্যাচের দুর্লভ ছবির সঙ্গে সাদৃশ্য খুঁজে গুণগত মান যাচাই করা হয়েছে।

You May Also Like