বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের মতো ছোট দলগুলোর সাথেই যেন আইসিসির করে থাকে সব ভুল

Untitled design 2022 04 15T011142.359

শিরোনাম শুনে অনেক ভক্ত-সমর্থকদের কিছুটা খটকা লাগতেই পারে। হঠাৎ কেন বাংলাদেশকে ছোট দল বলা হচ্ছে। এ দলই তো কিছু সময় আগেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ানডে সিরিজে পরাজিত করল। এই দলই তো ঘরের মাটিতে দীর্ঘ সাত বছরে মাত্র একটি সিরিজ হেরেছে। তাহলে হঠাৎ আফগানদের মতো নবীন দলের সাথে কেন বাংলাদেশের তুলনা করা হল।

উত্তরঃ স্পষ্ট বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানের ক্রিকেটারদের নিয়ে বেশ কয়েকবার ভুল তথ্য দিয়েছেন ক্রিকেটের বিভিন্ন অথেন্টিক পোর্টাল। বিভিন্ন ওয়েবসাইটে বেশ কয়েকবার রশিদ খানকে বাংলাদেশি প্লেয়ার হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া মেহেদি মিরাজ কেও বেশ কয়েকবার আফগানিস্তানের ক্রিকেটার হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। সম্প্রতি সময় আবার টাইগার পেসার খালেদ আহমেদ কে আইপিএলে নেওয়া হয়েছে, এ খবর প্রকাশ করে ক্রিকবাজ।

নিঃসন্দেহে ক্রিকবাজ এর মত একটি বিখ্যাত সাইটের কাছে এরকমের ভুল অপ্রত্যাশিত। এছাড়াও টাইগারদের নিয়ে বেশ কয়েকবার ভুল তথ্য প্রকাশ করেছে আইসিসি। ২০২১ সালের টেস্ট র্যাঙ্কিংয়ে টাইগারদের অবস্থান নবম নয় দশম স্থানে দেখাচ্ছিলো আইসিসি। নবম স্থানে আফগানিস্তানকে দেখা যাচ্ছিল। তবে আফগানরা র্যাঙ্কিংয়ে বিবেচিত হওয়ার মতো যথেষ্ট টেস্ট ম্যাচ ওই সময় পর্যন্ত খেলেনি। বাংলাদেশি এক সাংবাদিক এ কথা উল্লেখ করে আইসিসিকে চিঠি পাঠালে তারা পরবর্তীতে এ ভুল সংশোধন করে।

অর্থাৎ প্রায় প্রত্যেকটি ভুলই ঘুরেফিরে আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশের সাথেই হচ্ছে। মানুষ মাত্রই ভুল আইসিসির হর্তাকর্তারা ও মানুষ ফলে তারা ভুল করতেই পারে। তবে ভুল যখন শুধু বাংলাদেশ এবং আফগানিস্তানের মতো দলগুলোর সাথে হবে তখন প্রশ্ন জাগতেই পারে। ছোট দলগুলোর তথ্য দেওয়ার ব্যাপারে হয়তোবা তেমন ঘাটাঘাটি করে না ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। যদিও বাংলাদেশকে এখন আর ছোট দল বলার কোন উপায় নেই। তবে দল বড় হোক কিংবা ছোট সবার তথ্য দেওয়ার আগেই ন্যূনতম পর্যায়ের খোঁজখবর নেওয়া উচিত সবার। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা থেকে ভবিষ্যতে আর এ ধরনের ভুল দেখা যাবেনা এটাই প্রত্যাশা।

You May Also Like