টানেলেও সিটি-অ্যাটলেটিকোর মারামারি, পরিস্থিতি ঠেকাল পুলিশ

ম্যানচেস্টার সিটি আর অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের ম্যাচে গোলটা বাদে হয়েছে সবকিছুই। ম্যাচে ঝগড়া, হাতাহাতি হয়েছে বেশ, কার্ডের ছড়াছড়িও হয়েছে তাতে। তবে ঘটনাটা কেবল সেখানেই শেষ হয়ে যায়নি। মারামারি টানেলেও লাগে দুই দলের মধ্যে। এরপর পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি ঠাণ্ডা হয়।

ম্যাচ শেষে টানেল দিয়ে ফেরার পথে ঘটে অ্যাটলেটিকো ডিফেন্ডার স্তেফান স্যাভিচ হাত থেকে কিছু একটা ছুঁড়ে মারেন জ্যাক গ্রিলিশের দিকে। এর আগে অবশ্য কথা কাটাকাটি হয়েছে এই দুইজনসহ দুই দলের ডিফেন্ডার সিমে ভ্রাসালকো ও কাইল ওয়াকারের মধ্যে।

এরপর ঘটনার তীব্রতা বাড়তেই অ্যাটলেটিকোর কোচিং স্টাফরা এসে তাৎক্ষনিকভাবে পরিস্থিতি সামলান। তবে পরিস্থিতি আরও অবনতি হওয়ার আগে উয়েফা অনুরোধ জানায় পুলিশকে। তাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতিটা চূড়ান্তভাবে নিয়ন্ত্রণে আসে।

এর আগে ম্যাচের ৮৭ মিনিটে ফিল ফোডেনকে ট্যাকল করে ঘটনার সূত্রপাত ঘটান ফেলিপে। এরপর কথা কাটাকাটি, ঘগড়া, হাতাহাতির ঘটনা ঘটে সেখানে। তাতে ফেলিপে দেখেন লাল কার্ড, আর দুই দল মিলিয়ে দেখে আরও ৩৪টি।

সিমিওনে অবশ্য এমন কিছুর কথা উড়িয়েই দিলেন রীতিমতো। তিনি বললেন, ‘মি দেখিনি। মাঠের দর্শকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছিলাম এই যা! তবে টানেলে এমন কিছু হয়নি!’ গার্দিওলা যে সুখী হবেন না, তা বলাই বাহুল্য! অ্যাটলেটিকোর এমন ‘আতিথ্য’ নেওয়ার পর তিনি জানালেন, ‘আমার বলার আর কিছুই নেই!’

x

You May Also Like