ডেথ ওভারে মুস্তাফিজের চেয়েও এগিয়ে সাইফউদ্দিন

Untitled design 2022 04 06T205917.226

আধুনিক ক্রিকেটে অনেক সময়ই ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেয় ডেথ ওভার বোলিং। ওয়ানডেতে ৪৫-৫০ আর টি-টোয়েন্টি ১৭-২০ ওভার বেশ বড়সড় পরীক্ষা দিয়ে হয় বোলারদের। বাংলাদেশ দলে ডেথ ওভার বোলার হিসেবে সুখ্যাতি কুড়িয়েছেন বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। তার কাটার আর স্লোয়ারে নাস্তানাবুদ হন প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানরা। তবে ডেথ ওভার বোলার হিসেবে সেই মুস্তাফিজ থেকে মিডিয়াম পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকেই এগিয়ে রাখছেন সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

মিরপুরে আজ (বুধবার) সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে মাশরাফি বলেন, ‘সাইফউদ্দিন এই মুহূর্তে আমার কাছে সেরা ডেথ ওভারের বোলার। আপনি যদি ১৯ বিশ্বকাপ থেকে দেখেন। ধারাবাহিকভাবে সে ভালো করেছে, সে ডেথ ওভারে বাংলাদেশের অন্যদের চেয়ে আলাদা। এক্ষেত্রে আমি তাকে মুস্তাফিজের চেয়েও এগিয়ে রাখবো।’

কারণ ব্যাখ্যায় বলেন মাশরাফি, ‘ডেথ ওভারে যে ইয়র্কার আর ভেরিয়েশনের প্রয়োজন হয়, মুস্তাফিজের ভেরিয়েশন আছে কিন্তু সাইফউদ্দিন ইয়র্কারে অন্যদের চেয়ে বেশি একুরেট। শফিউলও ভালো করছে, শরিফুলও ভালো করছে। মুস্তাফিজ তো তার মতোই। মুস্তাফিজের বিকল্প নেই। সাইফউদ্দিন বাইরে আছে এখন, ও সুস্থ হয়েছে, খেলছে। সে ফিরলে বোলিং ইউনিটটা আউটস্ট্যান্ডিং হবে।’

সাইফউদ্দিন অবশ্য দীর্ঘদিন জাতীয় দলের সঙ্গে নেই। গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাওয়া চোটে ছিটকে যান তিনি। এখন সুস্থ হয়ে ফিরলেও জাতীয় দলে সহসা সুযোগ পাওয়া কষ্টকর তার জন্য। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজেকে প্রামণ দিয়েই ফিরতে হবে তাকে। তবে এখন যারা দলে আছেন, তাদের নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় বসতে যাওয়া আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভালো ফলের আশা দেখছেন মাশরাফি।

মাশরাফির জবাব, ‘আমাদের সিনিয়র খেলোয়াড় বলতে যে চারজনকে (সাকিব, তামিম, রিয়াদ, মুশফিক) বুঝায়। সঙ্গে লিটন, তাসকিন ও মিরাজ আছে। এরা যারা ৭-৮ বছর খেলছে আমার মনে হয়, তাদের এখন সময় পারফর্ম করার, এবং তারা করছেও। এই পারফরর্ম যদি টেনে নিয়ে যেতে পারে টেস্ট বলেন ওয়ানডে বলেন, পারফর্ম করলেই তো আত্মবিশ্বাস থাকে। তারা এখন পারফর্ম করছে, এটা যদি বিশ্বকাপে টেনে নিতে পারে অবশ্যই আশা করি ভালো কিছু হবে।’

সঙ্গে যোগ করেন মাশরাফি, ‘অস্ট্রেলিয়ায় হবে ফ্ল্যাট উইকেট, ওখানে প্রচুর রান হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। আমাদের রান করতে হবে। আমার মনে হয় ডিফেন্ড করার মতো বোলিং ইউনিট আমাদের আছে। খুব ভালো পেস বোলিং ইউনিট সাথে সাকিব, মিরাজ দারুণ বোলিং করছে। হয়তো টি-টোয়েন্টি মেহেদী (শেখ) খেলার সুযোগ বেশি আমি জানিনা। কিন্তু যেই খেলুক দুজনেই ভালো বোলিং করছে। মিরাজ, মেহেদী, সাকিবতো আউটস্ট্যান্ডিং। সবচেয়ে ভালো ব্যাপার পেস বোলিং ইউনিটটা খুব সুন্দর।’

You May Also Like