চার জন ভারতীয় খেলোয়াড় যারা বিদেশি নারীদের সাথে গাঁটছড়া বেঁধেছেন

Untl 36

ভারতীয় দলের অনেক এমন খেলোয়াড় রয়েছেন যারা সাফল্য পাওয়ার পরই পরিবার তৈরি কথা ভাবেন। শচীন টেন্ডুলকারও তাদের মধ্যে একজন। সাফল্যের চূড়ায় থাকাকালীন অঞ্জলীর সাথে শচীন টেন্ডুলকারের দেখা হয়েছিল। এরপর শচীন টেন্ডুলকার তাকে বিয়ে করেন। অঞ্জলি পেশায় একজন ডাক্তার ছিলেন। তবে এদিকে কিছু খেলোয়াড় ছিলেন যারা বিদেশি নারীদের সাথে গাঁটছড়া বেঁধেছেন। এই প্রতিবেদনে সেই ৪ জন খেলোয়াড়ের সম্পর্কে বলা হয়েছে।

□ ইরফান পাঠান:
প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার ইরফান পাঠান ২০১৬ সালে সৌদি আরবের সাফা ব্যাগকে বিয়ে করেছেন। সৌদি আরবের বিখ্যাত ব্যবসায়ী মির্জা ফারুক ব্যাগ তার বাবা। ইরফান পাঠান ও তার প্রেমের গল্পটি সম্পর্কে খুব বেশি জানা যায়নি। দুজনেই তাদের সম্পর্কটি লুকিয়ে রেখেছিলেন এবং বিয়ের পরেই তা বিস্তারিত ভাবে জানা যায়। ইরফান পাঠান তখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সক্রিয় ছিলেন না, তাই বিয়ে করে সংসার জীবন করার সিদ্ধান্ত নেন।

□ হরভজন সিং:
২০১৫ সালে গীতা বসরার সাথে হরভজনের পাঞ্জাবি রীতিতে ধুমধাম করে বিয়ে হয়। গীতা বসরা একজন ব্রিটিশ পাঞ্জাবি হওয়ার পাশাপাশি বলিউডের কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তবে সংসার জীবন শুরু করার পরেই তিনি ফিল্মি জগত থেকে অবসর নেন। হীনায়া নামে তাদের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। গীতা ও হরভজনকে মাঝেমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একসাথে পোস্ট করতে দেখা যায়।

□ যুবরাজ সিং:
কিংবদন্তি ভারতীয় অলরাউন্ডার যুবরাজ সিং ২০১৬ সালে হ্যাজেল কিচকে বিয়ে করেছেন। বিয়ের পর তার নাম রাখা হয়েছিল গুরবসন্ত কৌর। হ্যাজেল কিচ একজন ব্রিটিশ মরিশিয়ান অভিনেত্রী। এছাড়াও তাকেকে বলিউডের বেশ কয়েকটি ছবিতে দেখা গেছে। দীর্ঘদিন যুবরাজ সিংয়ের সঙ্গে প্রনয়ের সম্পর্কে থাকার পর গাঁটছড়া বাঁধার সিদ্ধান্ত নেন। বর্তমানে তারা সুখী জীবনযাপন করছেন ও সম্প্রতি তাদের একটি পুত্র সন্তান হয়েছে।

□ হার্দিক পান্ডিয়া:
ভারতীয় অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া ২০২০ সালে নাতাশা স্টানকোভিচকে বিয়ে করেছেন, যিনি একজন সার্বিয়ান নৃত্যশিল্পী, মডেল ও অভিনেত্রী। তিনি অভিনয়ের ক্যারিয়ার গড়ার জন্য ভারতে আসেন এবং মডেলিংয়ের মাধ্যমে তাঁর কর্মজীবন শুরু করেন। এরপর বেশ কয়েকটি সিনেমায় ও আইটেম গানে দর্শকদের মাতিয়েছিলেন। হার্দিক পান্ডিয়া ও নাতাশার একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

You May Also Like