এইমাত্র পাওয়াঃ বার্সেলোনায় ফিরলেন মেসি; বার্সা দলে ঢুকবেন নাকি অন্যকিছু!

প্যারিসে চেনা ছন্দে নেই লিওনেল মেসি। নিয়মিত গোল পাচ্ছেন না। তবে নিজে গোল না পেলেও গোল করাচ্ছেন ঠিকই। এই যেমন পিএসজির হয়ে সবশেষ লিগ ওয়ানের ম্যাচে ৩-১ ব্যবধানে বড় জয় পায় প্যারিসের জায়ান্টরা। ম্যাচটিতে জোড়া গোল করেছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। এদিকে গোল না পেলেও জোড়া অ্যাসিস্ট করেছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর।

পিএসজির জয়ে দারুণ ভূমিকা রাখা ছাড়াও গেল সপ্তাহে মেসি খবরের শিরোনাম হন আরও একটি কারণে। সম্প্রতি বার্সেলোনার বিমানবন্দরে দেখা গেছে তাকে।
২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে গত বছরের আগস্টে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দিয়েছিলেন মেসি। তবে প্রিয় শহর ছাড়লেও মাঝে মধ্যেই তাকে দেখা যায় সেখানে। এই যেমন গেল সপ্তাহেও দেখা গেছে আরও একবার।

পিএসজির হয়ে লিগ ওয়ানের ম্যাচের পরদিনই বার্সেলোনার বিমানবন্দরে দেখা মিলে মেসির। সাংবাদিকদের ক্যামেরাবন্দি হওয়ার পরপরই গুঞ্জন, সাবেক তারকা হঠাৎ কেন এলেন পুরনো ঢেরায়? তবে কারণটা জানা যায় পরপরই। যদিও সেটি নিশ্চিত করতে পারেনি গণমাধ্যম। তবে ধারণা করা হচ্ছে স্ত্রী রুকুজ্জোর জন্মদিন উদযাপন করতেই নিজের বাড়িতে ফিরেছেন মেসি। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি ৩৫ বছরে পা দিয়েছেন তার স্ত্রী আন্তানেল্লো রুকুজ্জো। তবে ক্লাবের ব্যস্ততায় সেটি উদযাপনের সুযোগ পাননি। আর তাই লিগ ওয়ানে সেইন্ট এতিয়ানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলেই বার্সেলোনার উদ্দেশে বিমানে চাপেন মেসি। এদিকে মেসির বার্সা ছাড়ার পরই প্রশ্ন উঠছে, আবার কবে ফিরবেন তিনি! কারণ মেসি আর বার্সা যে একই সূত্রে গাঁথা। আজকের মেসির যা অর্জন, সবটাই তো কাতালানদের হয়ে।

২০০৪ সালে ক্লাবটির হয়ে অভিষেকের পর ৩৪টি শিরোপা জিতেছেন। এ ছাড়া ব্যালন ডি’অর কিংবা অন্য অনেক রেকর্ডও নিজের করে নিয়েছেন। অন্যদিকে, পিএসজিতে সেই চেনা ছন্দে দেখা যাচ্ছে না মেসিকে।
ফরাসি লিগ ওয়ান কিংবা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কোথাও সেই আগেকার মেসির বা পায়ের জাদু দেখা যাচ্ছে না আর। আর তাই সবার বিশ্বাস, একদিন ঠিকই পুরনো ঘরে ফিরে আসবেন মেসি। এমন বিশ্বাস আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনার ছেলে ডিয়েগো সিনাগরাও।

সম্প্রতি ডিয়েগো সিনগারা বলেন, আমি নিশ্চিত মেসি একদিন বার্সেলোনায় ফিরে আসবে। হয়ত খুব বেশিদিন নেই আর। আগামী গ্রীষ্মেই। প্যারিসে সে খুশিতে আছে বলে মনে হচ্ছে না। সে একজন দারুণ ফুটবলার, তার জায়গাটাও বার্সেলোনা। এদিকে মেসির বিদায়ের পর থেকে বার্সেলোনা খুব বেশি ভুগছে না বলেও মনে করেন ম্যারাডোনা পুত্র। তিনি বলেন, পরিস্থিতি ভালোভাবেই মানিয়ে নিচ্ছে বার্সেলোনা। দেম্বেলে, ফেরান ও অবমেয়াংদের নিয়ে ধীরে ধীরে শক্তিশালী দল হয়ে উঠছে তারা।
এদিকে গার্ডিয়ানকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বার্সেলোনার মিডফিল্ডার ডি ইয়ং স্বীকার করলেন, মেসি বার্সেলোনা ছাড়ছেন–এ বিষয়টি আমি কখনো গুরুত্ব দিয়ে ভাবিনি। তাই আসলেই এটি যখন ঘটল, তখন আমার জন্য তা ছিল ধাক্কা। এটা সবার জন্যই বড় আঘাত ছিল। আমরা এখনো তাকে মিস করি।

You May Also Like