যে কোনো সময় তামিম-সাকিবদের বাদ দেওয়ার হুশিয়ারি সিডন্সের!

বর্তমানে বাংলাদেশ ক্রিকেটের বড় সুপারস্টার সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিমরা। তারা ক্যারিয়ারের শুরুতেই কোচ হিসেবে পেয়েছেন অস্ট্রেলিয়ান জেমি সিডন্সকে। প্রায়ই নিজেদের ক্যারিয়ার বিশেষ করে ব্যাটিংয়ে সিডন্সের প্রভাবের কথা বলে থাকেন সাকিব-তামিমরা।

প্রায় ১১ বছর পর আবার বাংলাদেশে এসেছেন সিডন্স। এতদিনে জুনিয়র থেকে সিনিয়র হয়ে রীতিমতো বিশ্ব ক্রিকেটের উজ্জ্বল তারকাই বনে গেছেন সাকিব-তামিমরা। তাই এখন মূলতঃ সিডন্সের কাজ করার জায়গা তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে।
এ ক্ষেত্রে কোনো তাড়াহুড়ো করতে চান না ৫৭ বছর বয়সী এ কোচ। সাকিব-তামিমদেরকে ক্যারিয়ারের শুরুতে যেমন সময় দিয়ে গড়েছেন তিনি, তেমনি এখন নতুনদের সময় দিতে চান। তাড়াহুড়ো করলে ক্যারিয়ারের শুরুতে যেকোনো সময় সাকিব-তামিমরাও বাদ পড়ে যেতে পারতেন বলে মনে করেন সিডন্স।

শনিবার সংবাদ মাধ্যমে সিডন্স বলেছেন, ‘আমাদের মনে রাখতে হবে তামিম, সাকিব, মুশফিক, রিয়াদরা তাদের শুরুতে অধারাবাহিক ছিল। আমরা তাদের ক্যারিয়ারের যেকোনো পর্যায়ে বাদ দিয়ে দিতে পারতাম। সাকিব যদি ভালো বোলার না হতো, তাহলে ব্যাটার হিসেবে বাদ পড়ে যেতে পারতো। সে নিজেকে গুছিয়ে নিয়েছে কারণ ব্যাটার হিসেবে তার সামর্থ্য ছিল।’

সিডন্সের বিশ্বাস এখন যে নতুন ক্রিকেটাররা আছে তাদের মধ্যেও সামর্থ্য আছে নতুন সাকিব-তামিম হওয়ার, ‘আমাদের এখন কিছু প্রতিভাবান সুপারস্টার রয়েছে। আমরা তাদের সময় দিবো, যথাযথ ক্রিকেটারকে বাছাই করে তাদের নিয়ে কাজ করবো। তাদের ওপর বাড়তি চাপ না দিয়ে যথেষ্ট সুযোগ দেওয়া উচিত। আমার কোনো সন্দেহ নেই তারা নতুন সাকিব-তামিম হবে।’ শুধু নতুন সাকিব-তামিম নয়, সিডন্সের লক্ষ্য মূলতঃ সাকিব-তামিমদের চেয়েও ভালো খেলা ক্রিকেটার বের করে আনা। তিনি চান নতুন ক্রিকেটাররা যেনো সাকিব-তামিমদের থেকেও আরও ভালো পর্যায়ে নিজেদের নিয়ে যেতে পারেন।

তার ভাষ্য, ‘আমার মতে, এরই মধ্যে আমার ওপর থেকে চাপটা সরে গেছে। তারা এখনই বড় ম্যাচে পারফর্ম করার মতো সামর্থ্যবান। লিটনের মতো ক্রিকেটাররা টেস্ট ম্যাচে করে দেখিয়েছে। আমার মনে হচ্ছে, আমি তাকে ছোট ছোট বিষয়ে সাহায্য করতে পারি।’ সিডন্স আরও যোগ করেন, ‘বিশ্বের সব বোলারের বিপক্ষে সেটা হোক অনেক গতিময় পেসার কিংবা অসাধারণ কোনো স্পিনার- তাদের বিপক্ষে ভালো করার জন্য তার যে শেষ কাজটা প্রয়োজন, তা করতে কিছুটা সময়। তামিম এবং অন্যরা দারুণ একটা পর্যায়ে চলে গেছে। আমরা এখন চাই তরুণরা যেনো আরও সামনে যেতে পারে।’

You May Also Like