জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৩১ রান।

ঢাকা টেস্টে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ইনিংসে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১১৭ রানে অলআউট করেছে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে জয়লাভ করতে হলে ২৩১ রান করতে হবে টাইগারদের।

রবিবার ম্যাচের চতুর্থ দিনের দিনের প্রথম সেশনটি দারুণভাবে পার করেছে বাংলাদেশ। এই সেশনে তিনটি উইকেট শিকার করে লাঞ্চ বিরতিতে গিয়েছে টাইগাররা। লাঞ্চ ব্রেক থেকে ফিরেই উইকেট তুলে নিলেন তাইজুল ইসলাম। ২০ রানে খেলতে থাকা জশুয়া ডি সিলভাকে আউট করেন তাইজুল ইসলাম।

স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ দেন তিনি। পরের ওভারেই এসে আলঝারি জোসেফের উইকেট তুলে নেন তাইজুল ইসলাম। ৮ রান করে নাজমুল হোসেন শান্ত হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। দলীয় ১১৬ রানের মাথায় দুর্দান্ত খেলতে থাকা বোনারকে ৩৮ রানে বোল্ড আউট করেন নাঈম হাসান। ১ রান পরেই কর্নওয়াল প্যাভিলিয়নে ফেরেন নাঈম হাসান।

তাইজুল ইসলাম চারটি, নাঈম হাসান তিনটি, মেহেদী হাসান মিরাজ একটি এবং আবু জাহেদ ১ উইকেট লাভ করেন।

গতকাল দিন শেষে অপরাজিত থাকা ব্যাটসম্যান জোমেল ওয়ারিকানকে বেশিদূর এগোতে দেননি রাহি। আজ দিনের পঞ্চম ওভারে বোলিংয়ে এসে ওয়ারিকানকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন তিনি। ২ রান করে ফিরেছেন এই ব্যাটসম্যান।

দলীয় ৬২ রানে কাইল মায়ার্সও রাহির বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন। চট্টগ্রাম টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করা এই ব্যাটসম্যান করেছেন ৬ রান। ৩৫তম ওভারে তাইজুল ইসলামের বলে স্ট্যাম্পিং হন জার্মেই ব্লাকউড। তার সংগ্রহ ৯ রান।

গত বৃহস্পতিবার মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের শেষ ম্যাচ। প্রথম দিন টস জিতে ব্যাট করতে নামে ক্যারিবীয়রা। প্রথম ইনিংসে তারা ৪০৯ রান করে অলআউট হয়। পরে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে অলআউট হয় ২৯৬ রান করে।

বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহীম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম এবং আবু জায়েদ রাহী।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ : ক্রেইগ ব্রাথওয়েট (অধিনায়ক), জন ক্যাম্পবেল, জার্মেইন ব্ল্যাকউড, শেন মোসলি, এনক্রুমাহ বোনার, জশুয়া ডা সিলভা (উইকেটরক্ষক), কাল মায়ারস, রাহকিম কর্নওয়াল, জোমেল ওয়ারিকান, আলঝারি জোসেফ এবং শ্যানন গ্যাব্রিয়েল।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment