আইপিএলে ধোনির দলে ডাক পাচ্ছেন যে টাইগার ক্রিকেটার

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) দেয়া এক বছরের নিষেধাজ্ঞা শেষ হয়েছে সাকিব আল হাসানের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন তিনি। এবার পালা ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) প্রত্যাবর্তনেরও।

১৮ ফেব্রুয়ারি শুরু হতে যাওয়া টুর্নামেন্টটির ১৪তম আসরের নিলামে তাকে দলে পেতে যে বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি লড়াই করবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সাকিব সর্বশেষ আইপিএল খেলেছিলেন ২০১৯ সালে। সেবার সানরাইর্জার্স হায়দরাবাদের হয়ে বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি।

দলটির হয়ে মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। যদিও আইপিএলের ঐ আসরের পর বিশ্বকাপে ব্যাট এবং বল হাতে দারুণভাবে জ্বলে উঠেছিলেন দেশ সেরা এই অলরাউন্ডার। উইন্ডিজদের বিপক্ষে প্রত্যাবর্তনের সিরিজেও জিতেছেন সিরিজ সেরার পুরষ্কার।

আগামী এপ্রিলে শুরু হতে যাওয়া আইপিএলের ১৪তম আসরে দেশসেরা এই অলরাউন্ডারকে পাওয়ার দৌড়ে অনেক দলই প্রতিযোগিতায় নামবে। দুবাইয়ের একটি গনমাধ্যম দাবী করছে বেশ কয়েকটি কারণে সাকিবকে দলে নেয়ার ক্ষেত্রে অন্য ফ্র্যাঞ্চইজিগুলোর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হতে পারে চেন্নাই সুপার কিংস।

তিনবারের আইপিএল চ্যাম্পিয়নদের গত আসরটি যে মোটেও প্রত্যাশা মতো হয়নি। টুর্নামেন্টের ৭ম দল হিসেবে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয়েছিল তাদের। এবার তাই বেশ আঁট-ঘাট বেঁধেই নামবে মহেন্দ্র সিং ধোনির দল। প্রথমত তাদের বিদেশী ক্রিকেটার কোঁটা খালি রয়েছে।

সেই কোটা পূরণ করতে অধিনায়ক ধোনি এবং প্রধান কোচ স্টিভেন ফ্লেমিংয়ের প্রথম পছন্দ একজন অলরাউন্ডার। সেক্ষেত্রে গনমাধ্যমটি দাবী করছে তাঁরা সাকিবের দিকেই নজর দিতে পারে। কেননা সাকিব দলের হয়ে ৩ থেকে ৬ নম্বরের যে কোন জায়গায় ব্যাট করতে পারেন।

এছাড়া চেন্নাই এ বারের আসরের জন্য তাদের প্রধান স্পিনার পিজূস চাওলা এবং হরভজন সিংকে ছেড়ে দিয়েছে। স্পিন আক্রমণে তাদের একমাত্র ভরসা রবিন্দ্র জাদেজা। এদিকে অস্ট্রেলিয়া সিরিজে পাওয়া হাতের চোট তাকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরজ থেকেই ছিটকে দিয়েছে।

আইপিএলের আগে তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন কিনা এমনটাও নিশ্চিত নয়। সেক্ষেত্রে গনমাধ্যমটি দাবী করছে জাদেজা ইনজুরি থেকে সেরে না উঠলে তাঁর বিকল্প হিসেবে সাকিবকে দলে ভেড়াতে পারে চেন্নাই। তাঁরা আরো বলছে, ভারতের মতো স্পিনিং উইকেটে বল হাতে সাকিব খুবই ভয়ঙ্কর হয়ে উঠতে পারেন।

এছাড়া তাঁর বোলিং চেন্নাইয়ের স্পিন আক্রমণে বৈচিত্র নিয়ে আসবে। কেননা চেন্নাইয়ের ঘরের মাঠ এম এ চিদাম্বরম স্টেডিয়াম সবসময়ই স্পিন বান্ধব। ফলে টুর্নামেন্ট জুড়ে তিনি ধোনির অন্যতম প্রধান অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার হতে পারেন।

গনমাধ্যমটি আরো বলছে, ফিল্ডিংয়ের কারণেও সাকিবকে দলে পেতে চাইবে চেন্নাই। কেননা গত আসরে ফিল্ডিংই ছিল দলটির প্রধান সমস্যা। সেক্ষেত্রে দলটির ফিল্ডিং দক্ষতা বাড়াতে সাকিব ভূমিকা রাখতে পারেন। যুক্তি হিসেবে গনমাধ্যমটি বলছে, ৩০ গজ বৃত্তের ভিতরে সাকিব বরাবরই দুর্দান্ত ফিল্ডিং করে থাকেন।

এছাড়া ক্যাচ ধরার ক্ষেত্রেও তিনি দারুণ পারদর্শী। ৩৩ বছর বয়সী সাকিব কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং হায়দরাবাদের হয়ে এখন পর্যন্ত ৬৩ টি আইপিএল ম্যাচ খেলেছেন। যেখানে তিনি বল হাতে ৫৯ টি উইকেট নিয়েছেন, ব্যাট হাতে করেছেন ৭৪৬ রান।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment