অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিবেন কোহলি !

চেন্নাই টেস্টে ভারতের পরাজয় চাপ বাড়াচ্ছে অধিনায়ক বিরাট কোহলির উপর। তাঁর নেতৃত্বে এর আগে টানা চার টেস্টে ভারত কখনও হারেনি। চিপকে পরাজয়ের পর তাই অধিনায়ক কোহলিকে নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। সিরিজের শুরু থেকেই অবশ্য এ বিষয়ে চর্চা চলছিল।

বিশেষ করে অস্ট্রেলিয়ায় পিছিয়ে পড়েও যেভাবে অজিঙ্ক রাহানের নেতৃত্বে ভারত ঘুরে দাঁড়িয়ে সিরিজ জিতে ফিরেছে। বাবা হওয়ার পর প্রথম টেস্ট খেলতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে হাফ সেঞ্চুরি করেও দলের হার বাঁচাতে পারেননি বিরাট। তবে সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়ও শোনা গিয়েছে তাঁর গলায়। অবশ্য বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ওঠার সম্ভাবনা সংক্রান্ত খানিক উত্তেজিত হয়ে পড়েন তিনি।

অনিল কুম্বলের নেতৃত্বাধীন আইসিসি ক্রিকেট কমিটির উপর ক্ষোভ উগড়ে দেন। কারণ, ওই কমিটি ঠিক করে লকডাউনের পর খেলা শুরু হলে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালিস্ট বাছা হবে পয়েন্টের শতকরা হিসেব বিচার করে। এতে ক্ষুব্ধ বিরাট গতকাল বলেন, লকডাউনে নিয়ম বদলালে তা আমাদের হাতে নেই। আমাদের হাতে আছে শুধু ভালো খেলা।

রাহানে দুই ইনিংসে ব্যর্থ হলেও তাঁর পাশেই থাকার বার্তাও দেন কোহলি। তবু তাঁর অধিনায়কত্ব নিয়ে সব মহলেই আলোচনা চলছে। Advertisement Ads by এমনটা হলে অধিনায়কত্ব ছাড়তে পারেন কোহলি, মন্টির মন্তব্যে জল্পনা চেন্নাইয়ে হারার আগে দেশের মাটিতে টানা ১৪টি টেস্ট অপরাজেয় ছিল ভারত। ১৯৯৯ সালের পর চেন্নাইয়ে কোনও টেস্ট ভারত হারেনি। এইসব পরিসংখ্যানও অধিনায়ক বিরাটের উপর চাপ বাড়াচ্ছে।

ইংল্যান্ডের প্রাক্তন স্পিনার মন্টি পানেসর বলেছেন, বিরাট কোহলি যে সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন, এটা নিয়ে সন্দেহ নেই। কিন্তু তাঁর অধিনায়কত্বে দল ভালো খেলছে না, এটাও ঠিক। তাঁর নেতৃত্বে শেষ চারটি টেস্টের ফলাফলেও তা স্পষ্ট। আমি মনে করি, রাহানের নেতৃত্বে দল খুব ভালো খেলার পর কোহলি নিজেও চাপে রয়েছেন। পরের টেস্টেও যদি ভারত হারে তবে বিরাট অধিনায়কত্ব ছেড়েও দিতে পারেন।

পানেসর আরও বলেন, ইংল্যান্ড চেন্নাইয়ে অবিশ্বাস্য জয় পেয়েছে। পাঁচদিন ধরে খেলা দেখে বোঝা গিয়েছে গোটা দল কতটা আত্মবিশ্বাসী। দলের জয়ে প্রত্যেকে অবদান রেখেছেন। এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে। তবে পানেসরের সঙ্গে সহমত নন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্লা। তিনি বলেন,

রোহিত শর্মা বা অজিঙ্ক রাহানের নেতৃত্বে ভারতীয় দল সাফল্য পেলেও আমি মনে করি না বিরাটকে অধিনায়কত্ব থেকে এখনই সরানো হবে। অন্তত টি ২০ বিশ্বকাপের আগে অবধি কোনও ফরম্যাটেই অধিনায়ক বদলের সম্ভাবনা আমি দেখছি না

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment