যাদের ভুলের কারণে হাড়লো বাংলাদেশকে

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রামে প্রথম টেস্টে শেষ দিনে ম্যাচ ঘুরিয়ে দিয়ে টেস্ট ম্যাচে জয়লাভ করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যদিও প্রথম ৪ দিনে এই টেস্টে চালকের আসনে ছিল বাংলাদেশ।

কিন্তু আজ ফিল্ডারদের ক্যাচ মিসের মহড়ায় এবং সঠিক সময়ে রিভিউ না নেওয়ার কারণে ম্যাচ খাটতে হয়েছে বাংলাদেশকে। গতকাল অধিনায়ক মুমিনুল হকের সেঞ্চুরি ও অফস্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজের ঘূর্ণিতে জয়ের সুবাতাস গায়ে মেখেই চতুর্থ দিনের খেলা শেষ করেছিল বাংলাদেশ।

কিন্তু আজ সকালে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম টেস্টের পঞ্চম দিনের প্রথম সেশনে কোন উইকেটের দেখা পায়নি বাংলাদেশের বোলাররা। ফলে নতুন মোড়ে দাঁড়িয়েছে চট্টগ্রাম টেস্ট। আগেরদিন বিকেলে শেষ ঘণ্টায় দলের ইনিংসে কোনো বিপদ ঘটতে দেননি ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই অভিষিক্ত ব্যাটসম্যান কাইল মায়ারস ও এনক্রুমাহ।

এমন নয় যে, পুরো সেশনে টাইগার বোলারদের ওপর আধিপত্য বিস্তার করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বরং উল্টোটা বলা যায় জোর দিয়ে। পুরো সেশনে একাধিক সুযোগ তৈরি করেছেন মেহেদি হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। কিন্তু কখনও রিভিউ না নেয়ার ভুল, আবার কখনও ক্যাচ ছেড়ে ক্যারিবীয়দের সুযোগ দিয়েছে বাংলাদেশ। যার সুবাদে এখন সুবিধাজনক অবস্থানে সফরকারীরা।

চতুর্থদিন করা ৩ উইকেটে ১১০ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আজ দুই প্রান্ত থেকে মেহেদি মিরাজ ও তাইজুলকে দিয়ে আক্রমণ শুরু করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। প্রথম সেশনে মেলেনি সাফল্য, সুযোগ পেয়ে মায়ারস ও বোনার অবিচ্ছিন্ন জুটিতে যোগ করেছেন ১৩৮ রান।

মেহেদি মিরাজের বলে স্লিপে দাঁড়িয়ে হাফসেঞ্চুরিয়ান মায়ারসের ক্যাচ ছেড়ে দিয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। সে বলে পাওয়া সিঙ্গেল থেকে ফিফটি পূরণ হয় মায়ারসের।

এছাড়া ইনিংসের ৫০তম ওভারে তাইজুলের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদেও পড়েছিলেন মায়ারস। আম্পায়ার আউট দেননি, রিভিউও নেয়নি বাংলাদেশ। কিন্তু সেই বলটি আঘাত হানত লেগস্ট্যাম্পে। ফলে সুযোগ পান মায়ারস।

সেশন শেষ হওয়ার ওভারে রিভিউ না নেয়ার ভুল করেনি বাংলাদেশ। এবারও বোলার ছিলেন তাইজুল, ব্যাটসম্যান মায়ারস এবং আম্পায়ারের সিদ্ধান্তও ছিল নটআউট। টাইগাররা রিভিউ নিলে দেখা যায়, সেই বলের উইকেটস ছিল আম্পায়ারস। অর্থাৎ আম্পায়ার আউট দিলে সাজঘরে ফিরতে হতো মায়ারসকে।

শুধু মায়ারস একা নন। বাংলাদেশের রিভিউ ভুলে বেঁচেছেন বোনারও। ইনিংসের ৫৬তম ওভারে নাঈম হাসানের দুর্দান্ত টার্নিং ডেলিভারি গিয়ে আঘাত হানে বোনারের পায়ে। বল লেগস্ট্যাম্প দিয়ে বের হয়ে যাবে ভেবে আউট দেননি আম্পায়ার, বাংলাদেশও নেয়নি রিভিউ।

রিপ্লেতে দেখা যায়, সে বলটিও লেগস্ট্যাম্পে লাগত। ফলে মায়ারসের মতো বেঁচে যান বোনারও।বাংলাদেশের একাধিক ভুলে শেষ পর্যন্ত অভিষেক ম্যাচেই ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হয়েছে মায়ারস।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment