সেঞ্চুরির পর এবার বল হাতে ৪ উইকেট নিয়ে রেকর্ড গড়লেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

ব্যাট হাতে সেঞ্চুরি করার পর এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বল হাতে জ্বলে উঠলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এইদিন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বল হাতে ৪ উইকেট নিয়েছেন তিনি। টি ব্রেক থেকে ফিরে বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২৫৯ রানে অলআউট হয়েছে তারা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের থেকে ১৭১ রানে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চট্টগ্রামে প্রথম টেস্টের তৃতীয় দিনের প্রথম বলেই ১৭ রানে অপরাজিত থাকা এনক্রুমাহ বোনারকে নাজমুল হোসেন শান্তর ক্যাচ বানান তাইজুল। এরপর বিপজ্জনক হয়ে ওঠা অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে ৭৬ রানে বোল্ড করেন নাঈম।

যদিও হাফ সেঞ্চুরি করেন তিনি। তবে ফিফটি করতে ব্যর্থ হন পাঁচ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা কাইল মেয়ার্স। শুরু থেকে বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান তুলছিলেন তিনি। তাকে ৪০ রানে থামান মিরাজ।

১৫৪ রানে ৫ উইকেট হারানো ওয়েস্ট ইন্ডিজকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন জার্মেইন ব্ল্যাকউড ও জশুয়া ডা সিলভা। বিপদজনক হয়ে উঠেছিল তাদের এই জুটি। তাদের দুইজনের ৯৯ রানের পার্টনারশিপ ভাঙ্গেন নাঈম হাসান।

ইনিংসের ৯৩তম ওভারে নাঈমের বল ব্যাকফুটে গিয়ে পুশ করতে গিয়ে ব্যাটের কানায় লাগিয়ে ফেলেন জশুয়া ডা সিলভা। বল চলে যায় উইকেটের পেছনে লিটন দাসের হাতে। ১৪১ বলে খেলা ৪২ রানের ইনিংসটি শেষ হয় তখই। ভাঙে ৯৯ রানের জুটিও।

পরের ওভারেই মেহেদী হাসান মিরাজের ঘূর্ণিতে কুপোকাত হলেন আরেক সেট ব্যাটসম্যান জার্মেইন ব্ল্যাকউড। এবারও ব্যাটের কানায় লাগিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেয়ালেন বোলাররা। মিরাজের বল ব্যাটের কানায় লেগে চলে যায় উইকেটের পেছনে লিটন দাসের হাতে। শেষ হয়ে গেলো ৬৮ রানের ইনিংস।

অর্থ্যাৎ ২৫৩ রানে বসিয়ে ক্যারিবীয়দের সেট দুই ব্যাটসম্যানকে তুলে নিল দুই স্পিনার নাঈম এবং মিরাজ। টি ব্রেক থেকে ফিরেই আবার উইকেট তুলে নেন মেহেদী হাসান মিরাজ। শূন্য রানে কেমার রোচকে প্যাভিলিয়নে ফেরান মিরাজ।

বাউন্ডারি লাইন থেকে তার ক্যাচটি ধরেন মোহাম্মদ মিঠুন। পরের ওভারেই এসে ২ রান করা রাকিম কর্নওয়ালকে প্যাভিলিয়নে ফেরান মেহেদী হাসান মিরাজ। শেষ উইকেটটি তুলে নেন তাইজুল ইসলাম। ২টি করে ওইকেট নিয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান, নাঈম হাসান এবং তাইজুল ইসলাম। চারটি উইকেট নিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মেহেদী হাসান মিরাজের সেঞ্চুরির সুবাধে ৪৩০ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয় বাংলাদেশ। ১০৩ রান করেন মিরাজ। সাকিব করেন ৬৮ এবং সাদমান করেন ৫৯ রান। জবাব দিতে নেমে দ্বিতীয় দিন ২ উইকেট হারিয়ে ৭৫ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সাদমান ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, মমিনুল হক (অধিনায়ক), মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), মেহেদী হাসান মিরাজ, নাঈম হাসান, তাইজুল ইসলাম এবং মুস্তাফিজুর রহমান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ: ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েট (অধিনায়ক), জন ক্যাম্পবেল, এনক্রুমাহ বোনার, জার্মেইন ব্ল্যাকউড, জসুয়া ডি সিলভা (উইকেটরক্ষক), শেন মোসলে, কাইল মায়ার্স, রাকিম কর্নওয়াল, জোমেল ওয়ারিকেন, কেমার রোচ এবং শ্যানন গ্যাব্রিয়েল।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment