ক্রিকেট বিশ্বের দ্রুততম ১০ বোলার, নেই ভারতের একজনও!

ক্রিকেট বিশ্বে অনেক দুর্দান্ত ফাস্ট বোলার রয়েছেন, যারা পিচ থেকে সামান্য সুযোগ না পেলেও তাদের গতিকে কাজে লাগিয়ে ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলতে পারেন। বর্তমানে জোফরা আর্চার, কাগিসো রাবাদা, প্যাট কামিন্স ও জসপ্রীত বুমরাহর মতো দুর্দান্ত ফাস্ট বোলার রয়েছেন। তবে অতীতের দিকে তাকালে এমন কিছু বোলার ছিলেন যাদের বলের গতিকে ‘বিদ্যুতের’ সাথে তুলনা করা হতো। এবার দেখে নেওয়া যাক সেই ১০ জন বোলারের সম্পর্কে:

১০) শেন বন্ড:
নিউজিল্যান্ডের ফাস্ট বোলার শেন বন্ড দ্রুত গতি বোলিংয়ের জন্য পরিচিত ছিলেন। এই খেলোয়াড় তার গতি দিয়ে প্রায় সমস্ত ব্যাটসম্যানকে অস্বস্তিতে ফেলে ছিলেন। এই কিউই ফাস্ট বোলার ২০০৩ বিশ্বকাপে ১৫৬.৬ কিলোমিটার গতিতে বল করেছিলেন।
৯) মোহাম্মদ সামি:
পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার মোহাম্মদ সামিও গতি ও সুইংয়ের জন্য পরিচিত ছিলেন। তিনি তার ক্যারিয়ারে প্রায় সমস্ত ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলেছেন। ২০০৩ সালে শারজায় অনুষ্ঠিত একটি ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিনি ১৫৬.৭ কিলোমিটার গতিতে বল করেছিলেন।

৮) মিচেল জনসন:
অস্ট্রেলিয়ার বাঁহাতি ফাস্ট বোলার মিচেল জনসনকে গতির রাজা বলা হয়। ২০১৩-১৪ অ্যাশেজ সিরিজে অসাধারণ ফর্মে ছিলেন এবং তিনি ১০ ইনিংসে মোট ৩৭টি উইকেট নিয়েছিলেন। এই সিরিজের মেলবোর্নের পিচে তিনি ঘণ্টায় ১৫৬.৮ কিলোমিটার বেগে বল করেছিলেন।

৭) ফিডেল এডওয়ার্ড:
ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের অনেক দুর্দান্ত ফাস্ট বোলার ছিলেন যারা তাদের গতি নিয়ে প্রতিপক্ষ দলের ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলেছেন। ফিডেল এডওয়ার্ড এর ক্রিকেট ক্যারিয়ার ছোট হলেও ২০০৩ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১৫৭.৭ কিলোমিটার গতিতে বল করেছিলেন।
৬) অ্যান্ডি রবার্টস:
ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুর্দান্ত ফাস্ট বোলারদের মধ্যে অ্যান্ডি রবার্টস অন্যতম ছিলেন এবং তার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে দ্রুততম বলটি নিক্ষেপ করেছিলেন ঘন্টায় ১৫৯.৫ কিলোমিটার বেগে। অ্যান্ডি রবার্টসকে তার সময়ের সবচেয়ে বড় ম্যাচ উইনার খেলোয়াড় বলা হত।

৫) মিচেল স্টার্ক:
বর্তমান অস্ট্রেলিয়া দলের শীর্ষস্থানীয় ফাস্ট বোলার মিচেল স্টার্ক তার গতি ও দুর্দান্ত ইয়র্কার বোলিং দিয়ে তাবড় তাবড় ব্যাটসম্যানদের সমস্যায় ফেলেছেন। ২০১৫ বিশ্বকাপে জীবনের সেরা ফর্মে ছিলেন এবং ওই বছরই তিনি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একটি টেস্ট ম্যাচে ১৬০.৪ কিলোমিটার গতিতে রস টেইলরকে বোল্ড করেছিলেন।

৪) জেফ থমসন:
অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন কিংবদন্তি ফাস্ট বোলার জেফ থমসন কতটা ভয়ঙ্কর ছিলেন এই নিয়ে আজও প্রসঙ্গ ওঠে। তিনি তার ক্যারিয়ারে অনেক ব্যাটসম্যানকে আহত করে মাঠের বাইরে পাঠিয়েছেন। এই ডানহাতি স্পিডস্টার ১৯৭৫ সালে তার দ্রুততম বলটি করেছিলেন ১৬০.৪ কিলোমিটার গতিতে।

৩) শন টেইট:
অল্প সময়ের ক্যারিয়ার হলেও গতির ত্রাস দেখিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ফাস্ট বোলার শন টেইট। যখনই তিনি অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলেছেন প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানরা তার গতি নিয়ে সমস্যায় পড়তেন। এই দুর্দান্ত ফাস্ট বোলার অস্ট্রেলিয়ার হয়ে তিন ফরম্যাটেই খেলেছেন। তার দ্রুততম নিক্ষেপ করা বলটির ঘন্টায় গতিবেগ ছিল ১৬১.১ কিলোমিটার।

২) ব্রেট লী:
এই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সেরা ফাস্ট বোলার ব্রেট লী। তার সময়ে বেশিরভাগ ব্যাটসম্যানদের মনে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছিলেন। এই খেলোয়ার তার গতির সাহায্যে একজন ম্যাচ উইনার হিসেবে নিজেকে প্রমাণিত করেন। ২০০৫ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে একটি ম্যাচে ১৬১.১ কিলোমিটার বেগে বল করেছিলেন।

১) শোয়েব আখতার:
‘রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’ নামে পরিচিত শোয়েব আখতার ক্রিকেট ইতিহাসে দ্রুততম বোলার। এই খেলোয়াড়ের অবসরের পরও এই রেকর্ড কেউ ভাঙতে পারেনি। ২০০৩ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিনি ঘন্টায় ১৬১.৩ কিলোমিটার বেগে বল করেছিলেন। শোয়েব আখতার পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মোট ৪৪৪টি উইকেট নিয়েছেন।

You May Also Like

About the Author: