এইমাত্র পাওয়াঃ মেসি ভক্তদের কান্নার সাগরে ভাসালো ফিফা

অবিশ্বাস্য ধারাবাহিকতায় মৌসুম জুড়ে গোলের বন্যা বইয়ে দিয়ে লড়াইয়ে উঠে আসেন রবের্ত লেভানদোভস্কি। তবে লিওনেল মেসিকে পেছনে ফেলে পোলিশ তারকার বর্ষসেরা হওয়ার বাস্তব সম্ভাবনা হয়তো খুব বেশি জনে দেখেননি। ফুটবল বিশ্বকে অবাক করে দিয়ে শেষ পর্যন্ত অবশ্য হয়েছে তাই। লিওনেল মেসিকে টপকে ২০২১ সালের ‘দা বেস্ট ফিফা মেনস প্লেয়ার’ পুরস্কারটি জিতে নিয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখের এই ফরোয়ার্ড।

সুইজারল্যান্ডের জুরিখে সোমবার রাতে বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থার ‘দা বেস্ট ফিফা ফুটবল অ্যাওয়ার্ডস’ অনুষ্ঠানে বিজয়ীর নাম ঘোষণা্ করা হয়।

বর্ষসেরা খেলোয়াড় নির্বাচনে গত ২২ নভেম্বর ১১ জনের তালিকা প্রকাশ করেছিল ফিফা। ২০২০ সালের ৮ অক্টোবর থেকে ২০২১ সালের ৭ অগাস্ট পর্যন্ত সময়ের মধ্যে পারফরম্যান্সের বিচারে সংস্থাটির একটি বিশেষজ্ঞ প্যানেল তালিকাটি তৈরি করেছিল। পরে গত ৭ জানুয়ারি ১১ জনের মধ্যে থেকে তালিকাটি তিন জনে নামিয়ে আনা হয়।

ব্যালন ডি’অরে খুব কাছে গিয়েও জিততে পারেননি। তবে ফিফা দ্য বেস্টের পুরস্কারটি ঠিকই নিজের করে নিলেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ তারকা রবার্ট লেভান্ডভস্কি। সোমবার সুইজারল্যান্ডের জুরিখে ‘ফিফ দ্য বেস্ট’ খেলোয়াড় হিসেবে তার নাম ঘোষণা করা হয়েছে।

টানা দ্বিতীয়বার এই পুরস্কার জিতলেন লেভান্ডভস্কি। এবার তিনি মেসির সঙ্গে হারিয়েছেন লিভারপুলের মিশরীয় তারকা মোহাম্মদ সালাহকে। ফিফার প্রকাশিত সংক্ষিপ্ত তালিকায় নাম ছিল তাদের। বুন্দেস লিগায় রেকর্ড ৪১ গোল করে ইউরোপিয়ান স্যু জিতে নিয়েছেন লেভান্ডভস্কি। এর মধ্যে ২৪ গোল করেছেন ২০২১ সালে। এছাড়াও এ বছর অনুষ্ঠিত ফিফা বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে দুই গোল ও ফাইনালে এক অ্যাসিস্ট করেন লেভান্ডভস্কি।
ব্যালন ডি’অরের মতো এখানেও তিনিই মেসির সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন।

মেসির জন্যও গত বছরটা ছিল স্বপ্নের মতো। ৬১ ম্যাচে ৪৩ গোলের সঙ্গে ১৯টি অ্যাসিস্ট ছিল তার। কোপা দেলরে, পিচিচি ট্রফির সঙ্গে গত বছরই বহুল আকাঙ্ক্ষিত কোপা আমেরিকা শিরোপা জিতেছেন আর্জেন্টাইন জাদুকর। এই টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা ও সেরা খেলোয়াড়ও ছিলেন তিনি।
অন্যদিকে গত বছর ৫৪ ম্যাচ খেলে ৩৮ গোলের সঙ্গে ১৪টি অ্যাসিস্টও করেছেন মোহাম্মদ সালাহ। যদিও শিরোপার খাতাটা শূন্য তার। তবে এ বছরের বিশ্বকাপে নিজের দেশ মিশরের খেলা নিশ্চিত করেছেন সালাহ।

You May Also Like