কিংবদন্তি ওয়াসিমের মত নতুন ১ দুর্দান্ত বোলার কে খুঁজে পেলো বিসিবি

সর্বকালের অন্যতম সেরা বোলার তিনি সন্দেহাতীত ভাবে যে কেউ স্বীকার করবে। সুলতান অব সুইং’ খ্যাতি পাওয়া এ পাকিস্তানি ১৯৯০ সালের অক্টোবরে উঠে এসেছিলেন বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ের দুইয়ে।

কিংবদন্তি বোলার ওয়াসিম আকরামের সাথে প্রাকৃতিকভাবে কিছু মিল আছে মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর। বয়সভিত্তিক ক্রিকেট থেকে উঠে আসা অলরাউন্ডার মৃত্যুঞ্জয়ের বোলিং অ্যাকশনের সাথে কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরামের বোলিং অ্যাকশনের অনেক মিল আছে। দুইজনই বাঁহাতি পেস বোলার ।

তবে কাউকে দেখে নিজের বোলিং অ্যাকশন তৈরি করেননি বলে জানিয়েছেন মৃত্যুঞ্জয়। তার দাবি, এই অ্যাকশন সম্পূর্ণই প্রাকৃতিক এবং তিনিও কখনো অ্যাকশন পরিবর্তন করা নিয়ে ভাবেননি।
সম্প্রতি ইন্ডিপেনডেন্স কাপে দারুণ বোলিং করেছেন এই বাঁহাতি পেসার। এর আগে বিসিএল ও এনসিএলে চার দিনের ম্যাচেও লাল বলে ভালো বোলিং করেছিলেন। তার বোলিংয়ের উন্নতির পেছনে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কোচদের ভূমিকার কথা জানিয়েছেন মৃত্যুঞ্জয়।

মৃত্যুঞ্জয় বলেন, ‘এই অ্যাকশন আমার প্রাকৃতিক। ছোটবেলা থেকেই এভাবে আছে, কোনো পরিবর্তন করিনি। আর বোলিং ও সুইংয়ের ব্যাপারে আমাদের বিসিবির কোচরা অনেক সহায়তা করেছেন। বিসিবির কোচরা শতভাগ দিয়ে আমাকে শিখিয়েছেন এবং আমিও সেই শিক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করেছি। ওটাই কাজে আসছে।’

অ্যাকশনে মিল থাকলেও মৃত্যুঞ্জয়ের আদর্শ ওয়াসিম নন। সুইং বলের দিক থেকে ওয়াসিমকেই সেরা মানেন মৃত্যুঞ্জয়। তবে তার পছন্দ দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার ডেল স্টেইনের আগ্রাসন। তাই তাকেই করেন অনুসরণ।

মৃত্যুঞ্জয় জানান, ‘বোলিংয়ের ক্ষেত্রে আমার আব্বু খুব পছন্দ করেন ওয়াসিম আকরামকে। তবে আদর্শ উনাকেই পুরোপুরি নিই তা না, আমি ডেল স্টেইনকেও খুব পছন্দ করি।
তার আগ্রাসী বোলিং আমার খুব ভালো লাগে। সুইং বোলার হিসেবে ওয়াসিম আকরাম অসাধারণ, তবে আমার স্টেইনকে বেশি ভালো লাগে।

You May Also Like