পাল্টে যাচ্ছে সিদ্ধান্ত ভারত নয় যে দুই দেশে হতে যাচ্ছে এবারের আইপিএল

বোর্ড অফ কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই) এই বছরের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ভারতের মাটিতে আয়োজন করতে বদ্ধপরিকর। তবে, করোনার উপদ্রপ বেড়ে যাওয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা এবং শ্রীলঙ্কায় আইপিএল শুরু করার চিন্তা করছে ভারত ক্রিকেট বোর্ড।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতেই বিসিসিআই ঘোষণা করেছে ভারতে ১৫তম আসর অনুষ্ঠিত হবে। তবে বর্তমান পরিস্থিতির পরিপ্রেক্ষিতে নতুন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছে ভারত। তাই আইপিএল আয়োজনের বিকল্প পথ খুঁজতে শুরু করেছে বিসিসিআই।

বিসিসিআই পরিকল্পনা করছে শুধু একটি রাজ্যে আইপিএল আয়োজনের। সেই দৌড়ে এগিয়ে আছে মহারাষ্ট্র। কারণ মহারাষ্ট্রে উন্নতমানের চারটি স্টেডিয়াম রয়েছে। ভারতীয় বোর্ড চাওয়া, করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে এই চার ভেন্যুতেই পুরো আইপিএল আয়োজন হোক!

শুধুমাত্র একটি রাজ্যে আইপিএল আয়োজনের পরিকল্পনা করছে বিসিসিআই। দৌড়ে এগিয়ে মহারাষ্ট্র। কারণ একমাত্র সেখানেই রয়েছে চারটি উন্নতমানের স্টেডিয়াম রয়েছে। করোনার প্রকপ না কমলে এই চার ভেন্যুতেই হতে পারে আইপিএল। এমনটাই জানিয়েছে ভারতীয় বোর্ড!

ভারতের একটি রাজ্যে আইপিএল আয়োজন করা সম্ভব না হলে বিসিসিআই টুর্নামেন্ট দেশের বাইরে আয়োজনের কথা ভাবছে। এমনই প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। সেক্ষেত্রে তারা দক্ষিণ আফ্রিকা বা শ্রীলঙ্কার মধ্যে একটি বেছে নিতে পারে।

আইপিএলের সর্বশেষ মৌসুমের দ্বিতীয় পর্ব সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হলেও বারবার তাদের ওপর নির্ভরশীল হয়ে থাকতে চায় না ভারতের বোর্ড। এ প্রসঙ্গে বোর্ডের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা সবসময় সংযুক্ত আরব আমিরাদে ওপর নির্ভর করে থাকতে পারি না। তাই আমরা বিকল্প খুঁজে বের করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে সময়ের পার্থক্য ক্রিকেটারদের জন্য ভালো হবে।’

১৫তম আসরে নতুন দুই ফ্র্যাঞ্চাইজি হয়েছে আহমেদাবাদ ও লক্ষ্ণৌ। ইতোমধ্যে বোর্ডের কাছ থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে এই দুই দলের ফ্র্যাঞ্চাইজি। বেঙ্গালুরুতে ১০ দলের অংশগ্রহণে এবারের নিলাম অনুষ্ঠিত হবে ১২ ও ১৩ ফেব্রুয়ারি। সব ঠিক থাকলে আইপিএল মাঠে গড়াবে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই।

You May Also Like