বাংলাদেশের বোলিং অ্যাটাক নিয়ে সতর্ক উইন্ডিজরা

অন্য যে কোনো সময়ের চেয়ে বাংলাদেশের পেস অ্যাটাক খুবই সমৃদ্ধ। এমনটাই মন্তব্য করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সহ-অধিনায়ক জেরমি ব্ল্যাকউড। তবে বরাবরই বাংলাদেশের স্পিনাররা ভয়ংকর। সব মিলিয়ে বাংলাদেশের বোলিং বিভাগ নিয়ে সচেতন ক্যারিবীয়রা। তাই ব্যাটসম্যানরা দায়িত্ব নিয়ে খেলতে পারলেই টেস্ট সিরিজে ইতিবাচক কিছু করতে পারবে উইন্ডিজ।

ক্রিস গেইল, চন্দরপলদের পর টেস্ট দলে তখন ব্রাথওয়েটরা অনেকটাই নিয়মিত। এমনই প্রতিদ্বন্দ্বী দলটায় আবির্ভাব জ্যামাইকার ২৩ বছরের জেরমি ব্ল্যাকউডের। অভিষেকে ৬৩ রানে দুর্দান্ত ইনিংস খেলে নজরে আসেন। সেই থেকেই উইন্ডিজদের টেস্ট দলে নিয়মিত সদস্য হিসেবে খুঁটি গেড়েছেন।
এর মাঝে অনেক ঘটনায় রটনায় ক্যারিবীয়দের উত্থান-পতন হলেও, টেস্ট দলের ভরসার প্রতীক হয়ে উঠেন। করোনা পরবর্তীকালে ইংল্যান্ড সফরে ব্যাটিং গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার পাশাপাশি নিউজিল্যান্ডের বৈরী কন্ডিশনে হ্যামিল্টনে দাপুটে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ব্ল্যাকউড। পেস বোলিংয়ের বিপক্ষে দারুণ। বিশেষ করে স্পিনের বিরুদ্ধে ফুটওয়াক আরও দুর্দান্ত। কিন্তু এই নির্ভরযোগ্য উইন্ডিজ ব্যাটসম্যানই সতর্কবার্তা দিলেন দলের সতীর্থদের।

৬ বছরের ক্যারিয়ারে উইন্ডিজের হয়ে ৩৩টি টেস্ট খেলেছেন। নিজ দেশের মাটিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩ ইনিংসে একটি ফিফটি সামর্থ্যের জানান দিচ্ছে টাইগার বোলারদের মোকাবিলা করতে প্রস্তুত ব্ল্যাকউড। তবে, এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ তো দূরে থাক এশিয়ার মাটিতে টেস্ট খেলা হয়নি তার। তাই কন্ডিশন আর উইকেট বিবেচনায় নতুন চ্যালেঞ্জ জ্যামাইকার এই ব্যাটসম্যানের সামনে। সর্বশেষ টেস্টে বাংলাদেশের কাছে হেরেছিল উইন্ডিজরা।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment