টি-টেনে বাংলাদেশের জয়জয়কার

এবারের আসরে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের রীতিমত জয়জয়কার অবস্থা। চতুর্থ আসরে দল পেয়েছেন সাত জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার। এর ভিতর নেতৃত্ব দিতেও দেখা যাবে দুজনকে। আর একজন আছেন সহ-অধিনায়ক হিসেবে। বরাবরের মত এবারও দলগুলোতে তারকার কমতি নেই।

সময় ঘনিয়ে এল। পর্দা উঠছে আইসিসি অনুমোদিত ক্রিকেটের সবচেয়ে ছোট ফরম্যাট টি-টেন ক্রিকেট লিগের চতুর্থ আসরের। এবারের আসরে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের রীতিমত জয়জয়কার অবস্থা। চতুর্থ আসরে দল পেয়েছেন সাত জন বাংলাদেশি ক্রিকেটার। এর ভিতর নেতৃত্ব দিতেও দেখা যাবে দুজনকে। আর একজন আছেন সহ-অধিনায়ক হিসেবে। বরাবরের মত এবারও দলগুলোতে তারকার কমতি নেই।

আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন দল মারাঠা অ্যারাবিয়ান্সকে নেতৃত্ব দিবেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ড্রাফট থেকে পেসার তাসকিন আহমেদ ও মুক্তার আলীকেও দলে নিয়েছিলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ানরা। তবে তাসকিনকে অনাপত্তিপত্র দেয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। তাসকিনের পরিবর্তে সোহাগ গাজীকে দলে নিয়েছে তাঁরা।

ডাক পাওয়ার পরই সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলে গিয়েছেন স্পিনার সোহাগ গাজী। দলের সাথে অনুশীলনও শুরু করেছেন ২৯ বছর বয়সী এই স্পিনার। মারাঠা অ্যারাবিয়ান্সের হয়ে আরো খেলবেন লরি ইভান্স, মোহাম্মদ হাফিজের মতো তারকারা।

শুধু সৈকতই নয়; টি-টেনে অধিনায়ক হিসাবে দেখা যাবে নাসির হোসেনকেও। ভারতীয় মালিকানাধীন পুনে ডেভিলসকে নেতৃত্ব দিবেন এই অলরাউন্ডার। পুনে ডেভিলসে আরো এক বাংলাদেশিকে দেখা যাবে। ৩৫ বছর বয়সী স্পিনার মনির হোসেনকে দলে নিয়েছে দলটি। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) সিলেট থান্ডারের হয়ে খেলেছিলেন মনির হোসেন। চার ম্যাচে শিকার করেছিলেন তিন উইকেট।

নাসির হোসেনের নেতৃত্ব পুনে ডেভিলসের জার্সিতে দেখা যাবে ইংল্যান্ডের ডেভিড মালান, পাকিস্তানের মোহাম্মদ আমির, হার্দুস ভিলজয়েন, ওয়েস্ট ইন্ডিজের চ্যাডউইক ওয়ালটনের মত ক্রিকেটারদের। দলের কোচ ফিল্ডিং গ্রেট, দক্ষিণ আফ্রিকার জন্টি রোডস।

এছাড়া দুই তরুণ স্পিনিং অলরাউন্ডার আফিফ হোসেন ধ্রুব ও শেখ মেহেদী হাসান খেলবেন বাংলাদেশি মালিকানাধীন দল বাংলা টাইগার্সের হয়ে। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার ইসুরু উদানাকে বাংলা টাইগার্স আইকন ক্রিকেটার হিসেবে ঘোষণা করলেও অংশ নেওয়া হচ্ছে না উদানার। উদানার পরিবর্তে আফিফ হোসেনকে আইকন ক্রিকেটারের মর্যাদা দিয়ে সহ-অধিনায়ক করেছে বাংলা টাইগার্স। বাংলা টাইগার্স দলের নেতৃত্ব দিবেন আন্দ্রে ফ্লেচার।

৯ দিনে ৮ দলের লড়াই শেষে ৬ ফেব্রুয়ারি ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। টুর্নামেন্টের সব গুলো ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী শেখ জায়েদ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে।

জানিয়ে রাখা ভাল, টি-টেন লিগে অংশ নেওয়া দল গুলো হলো – বাংলা টাইগার্স, দিল্লী বুলস, কালান্দার্স, ডেকান গ্ল্যাডিয়েটর্স, পুনে ডেভিলস, টিম আবুধাবি, মারাঠা অ্যারাবিয়ান্স এবং নর্দার্ন ওয়ারিয়র্স।

আবুধাবি টি-টেন টুর্নামেন্ট সরাসরি দেখা যাবে সনি টিভিতে। এছাড়াও মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার দেশগুলিতে আবুধাবি স্পোর্টস, যুক্তরাজ্যের স্কাই স্পোর্টস এবং দক্ষিণ আফ্রিকার সুপার স্পোর্টসে দেখা যাবে এই লিগ।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment