শেষ হাসিটা ইন্টারমিলানই হাসল

এরিকসনের শেষ মুহূর্তের নাটকীয় গোলে শ্বাসরুদ্ধকর মিলান ডার্বিতে শেষ হাসি হাসলো ইন্টারমিলান। এসি মিলানকে ২-১ গোলে হারিয়ে কোপা ইতালিয়ার সেমিফাইনালে পা রাখলো অ্যান্তনিও কন্তের দল। উত্তেজনাপূর্ণ এ ম্যাচে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন এসি মিলানের সুইডিস তারকা ফরোয়ার্ড জালাতান ইব্রাহিমোভিচ।

ইতিহাসের ২২৭ তম মিলান ডার্বি। ইন্টারমিলান ও এসিমিলান দুই নগর প্রতিদ্বন্দ্বীর ঐতিহ্যের লড়াইয়ের সব রসদই জমা ছিল সান সিরোতে। যেখানে ক্লাসিক ফুটবলের উত্তাপটা ছিল অনুমেয়। যদিও পুরো ম্যাচে ৬৫ শতাংশ বল দখলে রাখে ইন্টার। বিপরীতে এসি মিলানের পায়ে ছিলো ৩৪ শতাংশ বল।
ম্যাচের স্পটলাইটে ছিলো এসি মিলানের সুইডিশ তারকা ফরোয়ার্ড জালাতান ইব্রাহিমোভিচ আর ইন্টারের বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড রোমেলু লুকাকু। লড়াই শুরু হওয়ার পরই দৃশ্যপটে এই দুই ফুটবলার। যদিও ছন্দ ফিরে পেতে কিছুটা সময় নেয় তারা।

এক পর্যায়ে বলের দখল নিয়ে আধিপত্য বিস্তার ইন্টারমিলানের। তবে প্রতিপক্ষের রক্ষণপ্রাচীর ভেদ করে জালের ঠিকানা খুঁজে পাচ্ছিল না লুকাকু-সানচেজরা। বিপরীতে এসি মিলানও গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। তাইতো ম্যাচের ৩১ মিনিটে ইব্রাহিমোভিচের গোলে লিড নেয় এসি মিলান।
পিছিয়ে পড়ে সমতায় ফিরতে অ্যাটাকিং ফুটবল ইন্টারমিলানের। কিন্তু কাজের কাজটি করতে ব্যর্থতার পরিচয় দেয় ইন্টার ফরোয়ার্ডরা। তাই প্রথমার্ধে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় এসি মিলান।
বিরতির পরই বাধে বিপত্তি। লুকাকুর সঙ্গে বিবাদে জড়িয়ে পড়েন ইব্রাহিমোভিচ। দুজনকেই হলুদ কার্ড দেখান রেফারি। এরপর ৫৮ মিনিটে ইন্টারমিলানের আলেক্সান্ডারকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন সুইডিস তারকা ফরোয়ার্ড জালাতান ইব্রাহিমোভিচ। ফলে দশ জনের দলে পরিনত হয় এসি মিলান।
এই সুযোগটাকে কাজে লাগায় নেরাজ্জুরিরা। ৭১ মিনিটে স্পট কিক থেকে ইন্টারকে সমতায় ফেরান রোমেলু লুকাকু। এরপর অবশ্য ড্রয়ের দিকেই ঝুলছিলো ম্যাচটা। কিন্তু যোগ করা সময়ে দুর্দান্ত এক ফ্রি কিক থেকে জয়সূচক গোলটি করেন এরিকসন। তাতেই সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত হয়ে যায় কন্তের দলের।

সংশ্লিষ্ট খবর

Leave a Comment