বিশ্বকাপে দুর্দান্ত বল করেও চরম দু:সংবাদ পেলো মুস্তাফিজ

শ্রীলঙ্কার কাছে আয়ারল্যান্ড হেরেছে শোচনীয়ভাবে। ভুলে যাওয়ার মতো এই ম্যাচেই আবার বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন আইরিশ পেসার মার্ক অ্যাডায়ার। অ্যাডায়ার আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৫০ উইকেট শিকারের পথে ভেঙেছেন মুস্তাফিজুর রহমানের রেকর্ড। পেস বোলারদের মধ্য আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে দ্রুততম ৫০ উইকেট শিকারের রেকর্ড এতদিন ছিল মুস্তাফিজের দখলে। ৩৩ ম্যাচে ৫০টি উইকেট শিকার করেছিলেন তিনি।

দক্ষিণ আফ্রিকার ডেল স্টেইনের রেকর্ড ভেঙে এই রেকর্ড নতুন করে লিখেছিলেন মুস্তাফিজ। স্টেইনের রেকর্ডটি ছিল ৩৫ ম্যাচে। ওমানের বিলাল খানও ৩৫ ম্যাচে ৫০টি উইকেট পান। ৩৬ ম্যাচে ৫০টি উইকেট শিকার করেছিলেন পাকিস্তানের উমর গুল।
আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২১ এ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে মুস্তাফিজের রেকর্ডও ভেঙে গেল। কাটার মাস্টারের রেকর্ড ভাঙলেন ২৫ বছর বয়সী আইরিশ পেসার অ্যাডায়ার। মাত্র ২৮টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ৫০টি উইকেট শিকারের কৃতিত্ব গড়লেন তিনি।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচে চার ওভারে ৩৫ রান খরচ করে দুইটি উইকেট শিকার করেছেন অ্যাডায়ার। ৪৯তম উইকেট হিসেবে তিনি শিকার করেন ম্যাচটির সেরা খেলোয়াড় ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকে। চামিকা করুনারত্নেকে বোল্ড করে রেকর্ড বইয়ে নিজের নাম লেখান অ্যাডায়ার।

প্রসঙ্গত, আবুধাবিতে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় আইরিশরা। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কা সংগ্রহ করে ১৭১ রান। অর্ধশতক হাঁকান ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ও ওপেনার পাথুম নিসাঙ্কা।

হাসারাঙ্গা ৪৭ বলের মোকাবেলায় ১০টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ৭১ রান করেন। সমান সংখ্যক বল খেলে ৬১ রান করেন ৬টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকানো নিসাঙ্কা। আয়ারল্যান্ডের পক্ষে জশ লিটল চারটি ও মার্ক অ্যাডায়ার দুটি উইকেট শিকার করেন।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দলীয় ৮ রানে প্রথম উইকেট হারানো আয়ারল্যান্ড নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে।
প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক অ্যান্ড্রু বালবির্নি ও কার্টিস ক্যামফার। তবে তাদের সাজঘরে ফিরিয়ে ম্যাচ মুঠোয় ভরে নেয় লঙ্কানরা।

৩৯ বলের মোকাবেলায় বালবির্নি ৪১ রান করেন। ২৮ বলে ২৪ রান করেন ক্যামফার। ১৮.৩ ওভারে অলআউট হওয়ার আগে আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১০১ রান।
ফলে শ্রীলঙ্কা জয় পায় ৭০ রানের ব্যবধানে। শ্রীলঙ্কার পক্ষে মাহিষ থিকশানা তিনটি এবং চামিকা করুনারত্নে ও লাহিরু কুমারা দুটি করে উইকেট শিকার করেন।

You May Also Like

About the Author: