২০১১ সালের মত এবারও বিশ্বকাপ ঘরে তুলবে ভারত!

দশ বছর আগে অস্ট্রেলিয়া ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ হেরেছিল। অস্ট্রেলিয়াল ওপেন এবং উইলম্বডন জিতেছিলেন নোভাক জকোভিচ। চেন্নাই সুপার কিংস জিতেছিল আইপিএল। সঙ্গে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত।

১০ বছর পর প্রথম চারটি ঘটনারই পুনরাবৃত্তি হয়েছে। ভারতীয় সমর্থকদের আশা, শেষের ঘটনারও পুনরাবৃত্তি হবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতবে ভারত। ২০১১ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অ্যাসেজে ৩-১ হেরেছিল অস্ট্রেলিয়া। ঘরের মাঠেই সেই হারের মুখে পড়তে হয়েছিল অজিদের। এবার ঘরের মাঠে ভারতের কাছে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ হেরেছে। যে সিরিজ জয়ের অন্যতম কাণ্ডারী ঋষভ পন্ত ভারতের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলেও আছেন।

তাছাড়াও ২০১১ সালের মতো চলতি বছরেও অস্ট্রেলিয়াল ওপেন এবং উইলম্বডন জিতেছেন জকোভিচ। শুক্রবারই আইপিএল জিতেছে চেন্নাই। সেই ট্রেন্ড থেকে ভারতীয় সমর্থকদের আশা, এবার হয়ত বিরাট কোহলির হাতে বিশ্বকাপ ট্রফি দেখা যাবে। যে বিশ্বকাপ ট্রফি ২০১১ সালের ২ এপ্রিল মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে দেখেছিল ভারত। তবে সেই বিশ্বকাপ ছিল ৫০ ওভারের। তাৎপর্যপূর্ণভাবে ২০১১ সালেও বিশ্বকাপের আয়োজক ছিল ভারত।

এবারও ভারতই বিশ্বকাপের আয়োজক। তবে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিশ্বকাপ হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে। উল্লেখ্য, আগামী ২৪ অক্টোবর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অভিযান শুরু করবে ভারত। সেদিন পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নামবেন রোহিত শর্মারা। সেজন্য নয়া কিটের উন্মোচনও হয়েছে। সেই জার্সিকে ‘বিলিয়ন চিয়ার্স জার্সি’ হিসেবে অভিহিত করা হয়েছে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড তরফে বলা হয়েছে, ১০০ কোটি মানুষের সমর্থনের দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছে জার্সির ধরন।

সেই জার্সি তৈরি করেছে এমপিএল স্পোর্টস। যে সংস্থা ভারতীয় ক্রিকেট দলের অফিসিয়াল কিট স্পনসর। টুইটারে সংস্থার তরফে বলা হয়েছে, ‘এটা শুধুমাত্র একটি দল নয়। তাঁরা ভারতের গর্ব। এটা শুধুমাত্র একটি জার্সি নয়। এটা ১০০ কোটি সমর্থকের আশীর্বাদ। ভারতকে সমর্থন করতে তৈরি হও।’

You May Also Like

About the Author: