কেকেআরের মালিকানা বিক্রি করে দিবেন সাহরুখ খান! কতটুকু সত্য?

মুম্বাই ক্রুজ ড্রাগস পার্টি মামলার পর আবারও বলিউডের মাদক সংযোগ নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে। এই মামলায় আটক হয়েছেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খান। বর্তমানে আরিয়ান জেলে রয়েছেন। অন্যদিকে, এই ঘটনার পর শাহরুখ খানও সমস্যায় পড়ছেন।

আসলে শাহরুখ খান অনেক ব্র্যান্ডকে সেলিব্রেটি হিসেবে প্রচার করেন। শাহরুখ খান দেশের শিক্ষা-প্রযুক্তি কোম্পানি বাইজুসের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডরও। আরিয়ান খানের ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর এই সংস্থাটি একটি বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আপাতত কোম্পানি শাহরুখ খানের সব বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে। শাহরুখ ২০১৭ সাল থেকে ফার্মের অ্যাম্বাসাডর ছিলেন। প্রতিবছর এর জন্য তাকে প্রায় ৩-৪ কোটি টাকা দেওয়া হয়। এই বিষয়ে একজন বিশেষজ্ঞ বলেন,

“বাইজুস কিছু সময়ের জন্য শাহরুখ সম্পর্কিত সমস্ত প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে। এটি করার পিছনে কারণ হল যে তার ছেলে মাদক মামলার সাথে যুক্ত।”

তবে আশঙ্কা অন্য জায়গায়। শাহরুখ খান ভারতের জনপ্রিয় লিগ আইপিএলের ফ্রাঞ্চাইজি কেকেআরের মালিক। প্রশ্ন উঠেছে যে, এবার কি তাহলে কেকেআরের মালিকানাও খোয়াতে বসেছেন শাহরুখ? ছেলে মাদক কাণ্ডে যুক্ত। এমন সময় শাহরুখকেও আইনি মামলায় জড়াতে হতে পারে।

এই অবস্থায় বিসিসিআই বা আইপিএল কর্তৃপক্ষও বাইজুসের পথে হাঁটে কিনা সেটাই দেখার। আসুন আমরা আপনাকে বলি যে বাইজুস ছিল শাহরুখ খানের জন্য সবচেয়ে বড় ডিলগুলির মধ্যে একটি।

এছাড়াও তিনি হুন্ডাই, এলজি, দুবাই ট্যুরিজম, আইসিআইসিআই এবং রিলায়েন্স জিওর মতো অনেক কোম্পানির প্রচারের মুখ। একই সঙ্গে শাহরুখ খান বিগ বাস্কেটের সাথেও যুক্ত। এই বিষয়ে টাটা গ্রুপের একজন মুখপাত্র বলেন, “বিগবাস্কেট এই সময়ে কোন কিছু গ্রহণ,

অস্বীকার বা মন্তব্য করতে পছন্দ করবে না।” ক্রিয়েটিভ অ্যাডভার্টাইজিং এজেন্সি এফসিবি ইন্ডিয়ার গ্রুপ প্রেসিডেন্ট রোহিত ওহরি প্রকাশ করেছেন যে শাহরুখের ব্র্যান্ড ভ্যালু বাইজুসকে ব্যাপকভাবে সাহায্য করেছে এবং এ্যাসোসিয়েশন বন্ধ করা অবশ্যই এড-টেক ফার্মকে প্রভাবিত করবে।

You May Also Like

About the Author: