ক্রিকেট বিশ্বকে অবাক করে নির্বাচিত হলো শতাব্দীর সেরা বল

শিরোনামে, একজন ভারতীয় মহিলা স্টার্টার। অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি স্পিনার শেন ওয়ার্নের সঙ্গে তাঁর তুলনা হতে শুরু করে। হ্যাঁ, আল, এটা আমার কাছে বেশ বাজে মনে হচ্ছে, মনে হচ্ছে বিটি আমার জন্য নয় প্রকৃতপক্ষে,

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় টি -টোয়েন্টি ম্যাচে অ্যালিসা হ্যালিকে ভারতীয় দ্রুতগতির বোলার শিখা পান্ডে বহিস্কার করেছিলেন। এই বলটিকে এমনকি “শতাব্দীর বল” বলা হয়।

সিরিজের টি -টোয়েন্টির প্রথম খেলা ব্যাহত হওয়ার পর অস্ট্রেলিয়ার কাছে সিরিজের দ্বিতীয় লেগ হারায় ভারতীয় মহিলা দল। তবে ম্যাচ শেষ হওয়ার পরও শিখা পান্ডের বল ছিল আলোচনার কেন্দ্রে। শিখা অস্ট্রেলিয়ান রাউন্ডের প্রথম রাউন্ডে হিলিকে ড্র করেছিল।

বলটি মাটিতে আঘাত করে এবং অনেকটা ঘুরে যায়, হিলিকে সম্পূর্ণ বোবা করে এবং তার স্টাম্পগুলি কাঁপিয়ে দেয়। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ভিডিওটি ওয়েবে ভাইরাল হয়ে যায়। ওয়াসিম জাফরের মতো প্রাক্তন ক্রিকেটাররা এটাকে নারী ক্রিকেটে “শতাব্দীর সেরা বল” বলে অভিহিত করেছেন। জাফর টুইট করেছেন: “নারী ক্রিকেটে শতাব্দীর সেরা বল। কার্নিশ শিখা পান্ডে মাথা নিচু করে।

ম্যাচে শনিবার টসে হেরে ব্যাট করতে হয় ভারতকে। শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ে হরমনপ্রীত কৌরের দল। স্মৃতি মন্ধানা (১), শেফালি বর্মা (৩), জেমাইমা রড্রিগেড (৭) কেউই বেশিক্ষণ ক্রিজে ছিলেন না। একা লড়ে যাচ্ছিলেন হরমনপ্রীতই (২৮)। শেষ দিকে পূজা বস্ত্রকরের ২৬ বলে ৩৭ রানের ইনিংসের সৌজন্যে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেটে ১১৮ তোলে ভারত।

অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরাও খুব একটা আহামরি খেলতে পারেননি। কিন্তু বেথ মুনি (৩৪) এবং শেষ দিকে তাহলিয়া ম্যাকগ্রাথের অপরাজিত ৪২ রানের সৌজন্যে শেষ ওভারে চার উইকেট বাকি থাকতে জেতে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু সবকিছুকে ছাপিয়ে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে শিখার বোলিং।

You May Also Like

About the Author: