সেমি ফাইনালে সাকিবের খেলা না খেলা নিয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিলো কলকাতা

ব্যাট করার সুযোগ পাননি। কিন্তু বল হাতে এবং ফিল্ডিংয়ে নিজের অবদান রেখেছেন তিনি। বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান কেন এতদিন বাইরে বসেছিলেন কোনও যুক্তি নেই। আন্দ্রে রাসেল অর্ধেক সময় ফিটনেস সমস্যায় ভুগতে থাকেন। ব্যাট হাতে শেষ কবে বড় ইনিংস খেলেছিলেন মনে করতে হবে। বোলিং ভাল করলেও, তাঁর হাঁটুর সমস্যা লেগেই রয়েছে। রাসেলের মায়া কেকেআর কবে কাটাতে পারবে কে জানে?

তবে শেষ দুটি ম্যাচে সাকিবকে দলে ফেরানো যে সঠিক সিদ্ধান্ত তাতে সন্দেহ নেই। প্রশ্ন হচ্ছে রাসেল ফিট হয়ে গেলে আবার কি বাদ পড়তে হবে সাকিবকে ? এটা বড় প্রশ্ন। টিম ম্যানেজমেন্টের অনেকের মতে এই মুহূর্তে সাকিবকে বাইরে রাখার বোকামি না করাই ভাল। একমাত্র যদি রাসেলকে আনতেই হয়, তাহলে সুনীল নারিনের জায়গায় সেটা করতে হবে। তাও উইকেট এবং প্রতিপক্ষ বুঝে।

ব্রেন্ডন ম্যাককালাম নিজে সাকিবকে খেলিয়ে যাওয়ার পক্ষপাতী। ইনজুরির কারণে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে শেষ চারটি ম্যাচ খেলতে পারেননি ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল। তার জায়গায় প্রথম দুই ম্যাচে টিম সেইফার্ট ও টিম সাউদিকে খেলায় কলকাতা। কিন্তু পরিকল্পনামাফিক সফলতা পায়নি তারা। ফলে বদলাতে হয় তাদের পরিকল্পনা।

দুই ম্যাচেই দুর্দান্ত বোলিং করেছেন সাকিব। প্রথমে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে চার ওভারে মাত্র ২০ খরচায় নিয়েছেন ১ উইকেট। আর বৃহস্পতিবার রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে এক ওভারে মাত্র ১ রান দিয়ে নিয়েছেন প্রথম উইকেটটি।

রাজস্থানের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে কলকাতা অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান অকপটে স্বীকার করেছেন, সাকিব থাকায় খুব সহজেই আন্দ্রে রাসেলের অভাবটা পূরণ করতে পারছে কলকাতা।বৃহস্পতিবার রাতে রাজস্থানকে ৮৬ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে প্লে-অফের টিকিট প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছে কলকাতা।

বিশেষ করে প্রথম পর্বে শাহরুখ খানের দল যেরকম পারফরম্যান্স করেছিল, আরবে দ্বিতীয় পর্বে সেটা সম্পূর্ণ বদলে যাবে বোঝা যায়নি। ইয়ন মর্গ্যান জানেন এতদূর এসে খালি হাতে ফেরা যাবে না। তাই সাকিবকে সামনে রেখেই পরিকল্পনায় সাজাচ্ছে দুবারের চ্যাম্পিয়নরা।

You May Also Like

About the Author: