এখনও প্লে-অফের আশা আছে মুস্তাফিজের রাজস্তানের, দেখেনিন হিসাব নিকাশ

দুই পর্বে আইপিএল। ভারতের মাটিতে অর্ধেক হওয়ার পর, এটি করোনার কারণে স্থগিত করা হয়েছিল। এরপর সংযুক্ত আরব আমিরাতে ১৯ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। এদিকে, প্রথম রাউন্ডের খেলা প্রায় শেষ। দলগুলোর জন্য এক বা দুটি ম্যাচ বাকি আছে।

যদিও এরই মধ্যে প্লে-অফের জন্য তিনটি দল নির্ধারণ হয়েই গেছে। রিশাভ পান্ত আর স্রেয়াশ আয়ারের দিল্লি ক্যাপিটালস, মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস এবং বিরাট কোহলির রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু শেষ চারে খেলা নিশ্চিত করে ফেলেছে। বাকি রয়েছে আর মাত্র একটি জায়গা।

প্লে-অফের সেই একটি জায়গার জন্য লড়াই চলছে চারটি দলের মধ্যে। লিগ টেবিলের এখনও যা পরিস্থিতি, তাতে কলকাতা নাইট রাইডার্স, মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, পঞ্জাব কিংস এবং রাজস্থান রয়্যালস- এই চার দলের মধ্যে যে কেউ আইপিএলের প্লে-অফে উঠতে পারে। তবে পাঞ্জাব কিংস এবং রাজস্থান রয়্যালসের ওপর চাপটা এখন একটু বেশিই। তাদের ক্ষেত্রে অংকের হিসেবটাও অত্যন্ত জটিল হয়ে গেছে।

উপরোক্ত চারটি দলই খেলে ফেলেছে ১৩টি করে ম্যাচ। সবারেই বাকি আছে আর একটি করে খেলা। এর মধ্যে ১২ পয়েন্ট করে নিয়ে সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে কলকাতা এবং মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। যদিও কলকাতার রানরেট একটু বেশিই। ০.২৯৪। অন্যদিকে মুম্বাইয়ের রানরেট -০.০৪৮।

১০ পয়েন্ট করে নিয়ে এখনও সম্ভাবনা ধরে রেখেছে পাঞ্জাব কিংস এবং রাজস্থান রয়্যালস। দুই দলেরই রানরেটের অবস্থা খুবই খারাপ। শেষ ম্যাচ যদি তারা জেতেও, সে ক্ষেত্রে রানরেটে অনেক পিছিয়ে পড়তে হবে কেকেআর এবং মুম্বাইয়ের সঙ্গে। সে ক্ষেত্রে এই দুই দলের প্লে-অফে ওঠার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ।

পাঞ্জাব কিংসের ম্যাচ বাকি রয়েছে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে। বৃহস্পতিবার ডাবল হেডার। বিকেল ৪টায় মুখোমুখি হবে চেন্নাই এবং পাঞ্জাব। এই ম্যাচে চেন্নাই চেষ্টা করবে জয় নিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে যেতে। কারণ, জিতলেই তারা পেছনে ফেলবে দিল্লিকে।

দিল্লির সঙ্গে পয়েন্ট সমান হলেও রান রেটে এগিয়ে যাবে ধোনির দল। লিগ পর্বের একেবারে শেষ ম্যাচে ব্যাঙ্গালুরুকে যদি দিল্লি হারাতে পারে, তাহলে তারাই এককভাবে উঠে যাবে শীর্ষে এবং শীর্ষে থেকেই খেলবে প্লে-অফ।

চেন্নাইয়ের বিপক্ষে পাঞ্জাব যদি জিতে যায়, তাহলে তাদের পয়েন্ট হবে ১২। সে ক্ষেত্রে তাদেরকে তাকিয়ে থাকতে হবে কেকেআর এবং মুম্বাইয়ের শেষ ম্যাচের দিকে। কারণ, এই দুই দল কিংবা এক দলও যদি তাদের শেষ ম্যাচ জিতে যায়, তাহলে পাঞ্জাব কিংস কিংবা রাজস্থানের কোনোই লাভ হবে না।

রাজস্থানের পয়েন্টও ১০। তাদের শেষ ম্যাচ আবার কেকেআরের বিপক্ষে। বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় মুখোমুখি হবে এই দুই দল। কেকেআর জিতলে প্লে-অফ নিশ্চিত হয়ে যাবে তাদের। কারণ, পরের হায়দরাবাদের বিপক্ষে মুম্বাই জিতলেও রানরেটে অনেক পিছিয়ে পড়বে তারা।

নিজেদের শেষ ম্যাচে যদি কেকেআর এবং মুম্বাই হেরে যায়, পাঞ্জাব এবং রাজস্থান জিতে যায়, তাহলে এই চারটি দলেরই পয়েন্ট থাকবে সমান ১২ করে। সে ক্ষেত্রে রান রেটের হিসেবে যে এগিয়ে থাকবে, তারই আইপিএলে খেলা নিশ্চিত হবে। এ ক্ষেত্রে এগিয়ে আছে কেকেআরই।

তবুও ক্রিকেট হচ্ছে গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা। শেষ পর্যন্ত চতুর্থ দল হয়ে কে যাবে প্লে-অফে, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

আইপিএল পয়েন্ট টেবিল

You May Also Like

About the Author: