আগামী ৭ দিনে শক্তিশালী তিন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা, দেখেনিন সময়সূচি

আর্জেন্টিনা আগামী ৭ দিনে তিনটি বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব খেলবে। আলবিসেলেস্তের প্রতিপক্ষ প্যারাগুয়ে, উরুগুয়ে এবং পেরু। টানা ম্যাচ এবং ভ্রমণে ক্লান্ত ফুটবলাররা। এই অবস্থায় আর্জেন্টিনার বস লিওনেল স্কালোনি মনে করেন, প্রতিটি ম্যাচে তাদের থেকে বেশি আশা করা খুবই কঠিন।

তারপরও, কোচের রূপরেখা মেনে মেসি-ডি মারিয়ারা নিজেদের উজাড় করে দেবেন বলেই বিশ্বাস তার। এক মাস না যেতেই আবারো আন্তর্জাতিক বিরতি। ক্লাব টেন্ট ছেড়ে দলে দলে ফুটবলাররা যোগ দিয়েছেন জাতীয় দলের ক্যাম্পে। স্পেন, ইতালি, ফ্রান্স থেকে আর্জেন্টিনার এজেইজাতে এসে উপস্থিত হয়েছেন মেসি, ডি মারিয়া, পারেদেসরা।

কিন্তু, তারকাদের পেয়েও পুরোপুরি খুশি নিন আর্জেন্টাইন বস। টানা ম্যাচ আর কদিন পরপর লম্বা ভ্রমণের কারণে ফুটবলাররা মানসিক অবসাদে ভুগতে পারেন বলে শঙ্কা পেয়ে বসেছে স্ক্যালোনির মনে। তাই তো, মাঠের কৌশল সাজানোর আগে ফুটবলারদের মন বোঝার চেষ্টা করছেন তিনি।

আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্ক্যালোনি বলেন, এরকম টানা ফুটবল খেলা বেশ ক্লান্তিকর। ৭ দিনে আমাদের তিনটা ম্যাচ খেলতে হবে। কোনো অবস্থাতেই মনযোগ সরানো যাবে না। তারপর আবার ভ্রমণ করতে হবে দূর দূরান্তে। এটা ফুটবলারদের জন্য খুবই হতাশার।

৭ দিনে তিন ম্যাচের চেয়েও বেশি চিন্তা প্রতিপক্ষের নামগুলো। ল্যাটিন অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এমনিতেও ব্রাজিলের পেছনে আছে আলবেসিলেস্তারা। তাই উরুগুয়ে, প্যারাগুয়ে, পেরুর কারো বিপক্ষেই পা পেছলানোর সুযোগ নেই আকাশী নীলদের।

ইনজুরির কারণে তাই দিবালা-অ্যাগুয়েরোদের না পাওয়াটা কপালে ভাঁজ ফেলেছে স্ক্যালোনির। আর্জেন্টাইন কোচ বলেন, আমি সৌভাগ্যবান আমার দলে মেসি, মারিয়াদের মতো ফুটবলার আছে। আমার কৌশলে খুব একতা পরিবর্তন আনতে হয় না। সবাই জানে, আমাদের কি করতে হবে।

তবে, দিবালা এবং অ্যাগুয়েরোকে না পাওয়াটা কিছুটা চিন্তার আমাদের জন্য। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ খেলতে এরই মধ্যে কলম্বিয়ায় ক্যাম্প করেছে আরেক জায়ান্ট ব্রাজিল। কোয়ারেন্টাইন ঝামেলা কাটিয়ে ইতোমধ্যে সেলেসাও শিবিরে যোগ দিয়েছেন ইউরোপিয়ান ক্লাবে খেলা ফুটবলাররা।

উল্লেখ্য, ৮ অক্টোবর প্যারাগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে আর্জেন্টিনা। ১১ অক্টোবর উরুগুয়েকে আতিথ্য দেবে দলটি। এর তিন দিন পর ১৫ অক্টোবর ঘরের মাঠে পেরুর বিপক্ষে খেলবে লিওনেল মেসিরা। এর আগে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিপক্ষে মাঠে নেমেও বাতিল হয়েছিল সেই ম্যাচ।

খেলা মাঠে গড়ানোর কয়েক মিনিটের মাথায় কোয়ারেন্টাইনজনিত জটিলতার কারণে স্থগিত হয়ে যায় খেলা। তবে বাতিল হওয়া সেই ম্যাচটি এখনও অনুষ্ঠিত হয়নি। কবে হবে তা নিয়েও কোনো স্পষ্ট ঘোষণা আসেনি।

You May Also Like

About the Author: