কিপিং নয়, ব্যাটসম্যান হিসেবেই সেরাটা দিতে চান মুশফিক

বাংলাদেশ ক্রিকেটের উইকেট রক্ষকের গুরুদায়িত্ব বেশ লম্বা সময় ধরেই পালন করে আসছিলেন মুশফিকুর রহিম। কিন্তু কিউইদের বিপক্ষে সিরিজে সেখানে বড় রদবদল আনেন কোচ। বিতর্ক এড়াতে কিপিং ছেড়েছিলেন মুশি। এবার তা নিয়ে মুখ খুললেন তিনি। জানালেন এখন কিপিং নিয়ে তেমন ভাবছেন না। যদিও উইকেটের পেছনে থেকে বোলার ও অধিনায়কের কাজ সহজ করা সম্ভব মানছেন নিজেই।

সাম্প্রতিক সময়ে মুশফিক নিয়ে আলোচনা হলেই তার উইকেট কিপিং ছাড়ার ব্যাপারটি সামনে আসে। নিউজিল্যান্ড সিরিজের মাঝপথে হুট করেই টি-টোয়েন্টিতে কিপিং ছাড়ার ঘোষণা দেন মুশফিক।
কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো যে সিরিজ শুরুর আগে নুরুল হাসান সোহানের সাথে উইকেট কিপিং ভাগাভাগি করতে দেন মুশফিককে। প্রথম দুই ম্যাচে সোহান ও পরের দুই ম্যাচে মুশফিক। আর প্রথম চার ম্যাচের পারফরম্যান্স মূল্যায়ন করে পঞ্চম ম্যাচের কিপিং চূড়ান্ত করতে চেয়েছে ডোমিঙ্গো।

তবে তৃতীয় ম্যাচের আগেই মুশফিক কোচকে জানান টি-টোয়েন্টিতে আর কিপিং করতে চান না। গুঞ্জন আছে কোচের কিপিং ভাগাভাগি তত্ব পছন্দ হয়নি এই অভিজ্ঞ টাইগার ক্রিকেটারের।

এরপর অনেক সময় গড়ালেও মুশফিকের নিজের মুখ থেকে এ নিয়ে কোনো মন্তব্য আসেনি সংবাদমাধ্যমে। অবশেষে আজ (১ অক্টোবর) একটি অনলাইন গেমিং অ্যাপসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ নিয়ে কথা বলেন মুশফিক।

সাংবাদিকের করা প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যে কোন একটা জিনিস যত কাছ থেকে দেখবেন সেটা আপনাকে অনেক পরিষ্কার ধারনা দেয় (উইকেটের পেছন থেকে পরিস্থিতি বুঝতে)। পাশাপাশি এখন যদি দলের চিন্তা বা কম্বিনেশন যদি অন্যরকম থাকে যেটা কিনা সদস্য হিসেবে অবশ্যই আমাকে মানিয়ে নিতে হবে, আমি চেষ্টা করি সবসময় টিম প্লেয়ার হিসেবে খেলার।’

‘আর বারবারই বলি যে তারা (টিম ম্যানেজমেন্ট) যেভাবে আমাকে দেখতে চাইবে আমিও সেভাবে সেই ভূমিকায় মানিয়ে নিতে চাই। এখন যদি তারা ব্যাটিংয়ে আমার কাছ থেকে অনেক বেশি কিছু আশা করেন তো আমি সেটাই চেষ্টা করবো।’

‘যেন এখানে ফোকাস করে দলের উপকারে আসতে পারি। আর আমি মনে করি যে একজন ব্যাক্তির চেয়ে অবশ্যই দল বড়। তো আমি ব্যাপারটাকে সেভাবেই নিচ্ছি।’

You May Also Like

About the Author: