রাজস্থান ও ব্যাঙ্গালোরের ম্যাচ শেষে, দেখেনিন আইপিএলের সর্বশেষ পয়েন্ট টেবিল

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৪ তম আসরের ৪৩ তম ম্যাচে মুস্তাফিজুর রহমানের রাজস্থান, রয়্যালস রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের কাছে সাত উইকেটে হেরেছে। এই পরাজয় মুস্তাফিজদের জন্য শেষ চারে টিকে থাকা খুব কঠিন করে তুলেছিল।

দুবাইয়ে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ভালো শুরুই পেয়েছিল রাজস্থান। যদিও নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে স্কোর বোর্ডে জড়ো হয় মাত্র ১৪৯ রান।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৫৮ রান করেন এভিন লুইস। ৩৭ বলের মোকাবেলায় তিনি হাঁকান ৫টি চার ও ৩টি ছক্কা। এছাড়া আরেক ওপেনার যশস্বী জাইসওয়াল ২২ বলে ৩১ রান করেন। উদ্বোধনী জুটিতে দুজনে এনে দিয়েছিলেন ৭৭ রান।

অন্যান্যদের মধ্যে অধিনায়ক স্যাঞ্জু স্যামসন ১৫ বলে ১৯ ও ক্রিস মরিস ১১ বলে ১৪ রান করেন। ব্যাঙ্গালোরের পক্ষে হার্শাল পেটেল তিনটি এবং যুযবেন্দ্র চাহাল ও শাহবাজ আহমেদ দুটি করে উইকেট শিকার করেন।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ব্যাঙ্গালোরকে ৪৮ রান এনে দেয় দুই ওপেনারের জুটি। ষষ্ঠ ওভারে পাড়িকালকে শিকার করে ব্রেক থ্রু এনে দেন মুস্তাফিজ। অধিনায়ক বিরাট কোহলি ২০ বলে ২৫ ও দেবদূত পাড়িকাল ১৭ বলে ২২ রান করে সাজঘরে ফিরলে হাল ধরেন শ্রীকর ভারত ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল।

১৬তম ওভারে ভারতকে (৩৫ বলে ৪৪) শিকার করেন মুস্তাফিজ, এই ওভারে খরচ করেন মাত্র ৪ রান। কিন্তু ম্যাক্সওয়েল উইকেটে সেট হয়ে ততক্ষণে ম্যাচ বের করে নিয়েছেন। এবি ডি ভিলিয়ার্সকে উইকেটের অপর প্রান্তে রেখে নিশ্চিত করেন জয়, ৭ উইকেট ও ১৭ বল হাতে রেখে। ৩০ বলে ৫০ রান করে অপরাজিত থাকেন ৬টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকানো ম্যাক্সওয়েল।

মুস্তাফিজ এদিন ৩ ওভার বল করে ২০ রান খরচ করেন, শিকার করেছেন জোড়া উইকেটও। দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ে নিশ্চিত একটি ছক্কা আটকে প্রশংসা কুড়ান। দলের পক্ষে আর কেউই কোনো উইকেট শিকার করতে পারেননি। চেতন সাকারিয়া ৩ ওভারে খরচ করেছেন ১৮ রান। ৪ ওভার বল করে ক্রিস মরিস একাই বিলি করেছেন ৫০ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

টস : রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর

রাজস্থান রয়্যালস : ১৪৯/৯ (২০ ওভার)লুইস ৫৮, জাইসওয়াল ৩১হার্শাল ৩৪/৩, শাহবাজ ১০/২, চাহাল ১৮/২

রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর : ১৫৩/৩ (১৭.১ ওভার)ম্যাক্সওয়েল ৫০*, ভারত ৪০, কোহলি ২৫মুস্তাফিজ ২০/২

You May Also Like

About the Author: