সুযোগ পেলে জাতীয় লিগের ম্যাচও খেলতে চাই : মাশরাফি

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে আজকের এই উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে আসতে যে কয়জন ক্রিকেটার সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁর মধ্যে মাশরাফি অন্যতম। এই পর্যন্ত অনেক রেকর্ড নিজেদের করে নিয়েছেন এই তারকা ক্রিকেটার।

নতুন খবর হচ্ছে, মাশরাফি বিন মর্তুজাকে সবাই চেনে সাদা বলে বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক হিসেবে। তবে লাল বলেরও অধিনায়ক ছিলেন তিনি। কিন্তু ২০০৯ সালে টেস্ট অধিনায়কত্বের অভিষেক ম্যাচেই ইনজুরিতে পড়েন মাশরাফি।

এরপর আর টেস্ট খেলা হয়নি তাঁর। এমনকি ঘরোয়া প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেও অনিয়মিত হয়ে পড়া মাশরাফি সর্বশেষ জাতীয় লিগের ম্যাচ খেলেছেন ২০১৮ সালের এপ্রিলে। সেই তাঁকে দেখা যেতে পারে লাল বল হাতে ছুটতে, মধ্য অক্টোবরে শুরু হতে যাওয়া জাতীয় লিগে।

করোনার কারণে গত বছরের মার্চে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ স্থগিত হওয়ার পর আর ক্রিকেটের আশপাশেই দেখা যায়নি মাশরাফি বিন মর্তুজাকে। ওজন বেড়ে গিয়েছিল প্রায় ১৫-১৬ কেজি। কিন্তু গতকাল তাঁর নিজের ফেসবুক পোস্টে দেওয়া ছবিতে একদমই মেদহীন মাশরাফি। ‘প্রায় এক শ কেজি ওজন হয়ে যাচ্ছিল। অল্পের জন্য সেঞ্চুরি হয়নি’, বরাবরের রসিকতায় শুরু করা মাশরাফি ফিটনেসে মনোযোগের নমুনাও দিলেন গতকাল, ‘এখন ৭৯ কেজি। আশির নিচে এই প্রথম।’

ওজন বেড়ে গেলে সেটা কমিয়ে নেওয়ার অসংখ্য উদাহরণ আছে মাশরাফির। বিরতির পর মাঠে ফেরার আগে ঝট করে ফিট হয়ে ওঠাটা তাঁর জন্য নতুন নয়। এবারও ওজন কমিয়েছেন মাঠে ফেরার লক্ষ্যেই, ‘ডিপিএল (ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ) ও বিপিএল (বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ) তো অবশ্যই খেলব। সুযোগ পেলে জাতীয় লিগের দুই-একটা ম্যাচও খেলতে চাই।’

লাল বলে তাঁর ফেরার ইচ্ছা সম্ভবত লম্বা বিরতিতে ম্যাচ প্র্যাকটিসে জমে থাকা ধুলোর ভারী স্তর সরানোর জন্যই। মূল লক্ষ্য ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ আর বিপিএল।

You May Also Like

About the Author: