এটি লজ্জাজনক, ম্যাচে আমরাই জিততাম

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ম্যাচ মানে বিশ্বব্যাপী এক উন্মাদনা, রোমাঞ্চ। রোববার তেমনই এক লড়াইয়ের অপেক্ষা ছিল বিশ্বের তামাম ফুটবলপ্রেমীদের। কিন্তু সেটি দেখা সম্ভব হয়নি কোয়ারেন্টাইনজনিত ঝামেলায়। ইংল্যান্ডের ক্লাব ফুটবল খেলা আর্জেন্টিনার ৪ ফুটবলারকে নিয়ে দেখা দেয়া জটিলতায় ৫ মিনিটের বেশি মাঠে গড়ায়নি খেলা।

পরে সুপার ক্লাসিকো ম্যাচটি স্থগিতই করে দিয়েছে লাতিন অঞ্চলের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা কনমেবল। আর্জেন্টিনা দলও রাতের মধ্যেই ফিরে গেছে দেশে। আর আজ ক্লাবে যোগ দিতে ইউরোপে চলে যাচ্ছেন তাদের দলের সেই চার ফুটবলারের দুজন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ ও এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া।

আর্জেন্টিনা ছাড়ার আগে বিমানবন্দরে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়েছিলেন দলের কোপা আমেরিকা জয়ের অন্যতম নায়ক গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। তার কাছে পুরো বিষয়টি এখনও পরিষ্কার নয়। কোনো রাখঢাক না রেখে মার্টিনেজ সরাসরিই বলে দিয়েছেন, ম্যাচটি জিততো আর্জেন্টিনাই।

তার মতে, ফুটবলে এমন কিছু আগে কখনও দেখা যায়নি। মার্টিনেজ বলেছেন, ‘গতকাল কী হলো তা আমরা বুঝতেই পারিনি। ফুটবল ইতিহাসে এমন কিছু আগে কখনও হয়নি। দক্ষিণ আমেরিকান পর্যায়ে বিষয়টি লজ্জার। আন্তর্জাতিক পর্যায়ের দুর্দান্ত একটি ম্যাচ ওসব কারণে স্থগিত হয়ে যাওয়া… এ বিষয়টা কখনোই বুঝতে পারব না।’

গত শুক্রবার ভোরে ভেনেজুয়েলার মাটিতে গিয়ে খেলে এসেছে আর্জেন্টিনা। সেদিনই তারা ম্যাচ শেষ করে চলে যায় ব্রাজিলে। সুপার ক্লাসিকো সামনে রেখে ব্রাজিলেই তিনদিন ধরে প্রস্তুতি নিয়েছে আলবিসেলেস্তেরা। কিন্তু তখনও কোয়ারেন্টাইনজনিত ঝামেলার বিষয়টি জানানো হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন মার্টিনেজ।

তার ভাষ্য, ‘ম্যাচটি খেলার জন্য তিনদিন ধরে ব্রাজিলে প্রস্তুতি নিয়েছি আমরা এবং সেটা মাঠে গড়ানোর ৫ মিনিটের মধ্যে বন্ধ হয়ে যাওয়া তিক্ত অভিজ্ঞতা। জেতার জন্য আমাদের সবকিছুই ছিল এবং শেষ পর্যন্ত রাজনৈতিক কারণে… আমি জানি না কী হয়েছে, ম্যাচটা স্থগিত হলো এবং আমাদের ফিরে আসতে হয়েছে।’

মার্টিনেজ আরও যোগ করেন, ‘গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল, যারা প্রিমিয়ার লিগ থেকে এসেছে তারা হয়তো ম্যাচটি খেলতে পারবে না। কিন্তু আমরা যখন ব্রাজিলে এসেছিলাম, তখনই তাদের উচিত ছিল এ বিষয়ে সতর্ক করা। ম্যাচটি বাতিল হওয়ার জন্য এত কিছু করিনি আমরা। তারা আমাদেরকে আগেই সতর্ক করতে পারতো।’

পুরো ঘটনাটিকে লজ্জাজনক হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এটা লজ্জাজনক। কেননা আমরা ম্যাচটি জিততে চলেছিলাম। আমরা আত্মবিশ্বাসী ছিলাম, দলও ভালো করছিলো। আমরা তখন কিছুই বুঝতে পারছিলাম না। আমরা আধঘণ্টা ধরে অপেক্ষা করেছি এটা বোঝার জন্য যে আদৌ খেলা হবে কি না। তো ৩০-৪০ মিনিট পর তারা জানালো, আমাদের চলে যেতে হবে।’

রোববার বাংলাদেশ সময় রাতে ম্যাচটি স্থগিত হওয়ার পর বেশি সময় আর ব্রাজিলে অবস্থান করেনি আর্জেন্টিনা দল। সেই চার ফুটবলারকে নিয়েই দেশে ফিরে গেছে তারা। তবে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর চেয়েছিল ইংল্যান্ড থেকে যাওয়া আর্জেন্টিনার ৪ ফুটবলারকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে রাখতে। এক্ষেত্রে আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান ক্লাউদিও তাপিয়ার হস্তক্ষেপে পুরো দল নিয়েই ফিরতে পেরেছে তারা।

তাপিয়াকে ধন্যবাদ জানিয়ে মার্টিনেজ বলেছেন, ‘একটা সম্ভাবনা ছিলো যে, ইংল্যান্ড থেকে যাওয়া চারজন খেলোয়াড়কে তারা সেখানেই (ব্রাজিল) ১৪ দিন রেখে দিতো। তবে (ক্লাউদিও) তাপিয়া এ ক্ষেত্রে আমাদের সাহায্য করেছে এবং আমাদের পাশে থেকেছে। সে সাফ জানিয়েছে যে আমরা সবাই চলে যাচ্ছি এবং আমরা সেই জায়গা ছেড়ে চলে আসি।’

‘তাপিয়াকে এবং দলের বাকিদের ধন্যবাদ। যারা সবসময় আমাদের পাশে ছিল। অ্যাস্টন ভিলাও ব্রাজিলের বিষয়টি বুঝতে পারছে না এবং এটি কেনো হলো তা ধরতে পারছে না। বিশ্ব ফুটবল এটি কখনও আশা করেনি। খেলাটা ছিল উপভোগ করার জন্য, নিজেকে বোকা প্রমাণের নয়।’

এবারের আন্তর্জাতিক সূচির খেলা শুরুর আগেই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলা ফুটবলারদের জাতীয় দলে যোগ দেয়া নিয়ে ঝামেলা দেখা দেয়। যে কারণে ব্রাজিল দলের ৯ জন খেলোয়াড় ইংল্যান্ড থেকে জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারেননি। তবু দেশের প্রতি ভালোবাসার কারণে আর্জেন্টিনার চারজন ঠিকই চলে এসেছেন ইংল্যান্ড থেকে।

এ বিষয়ে আর্জেন্টাইন গোলরক্ষকের ভাষ্য, ‘আমরা জাতীয় দলের প্রতি ভালোবাসার কারণে দলে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছই। যদিও প্রিমিয়ার লিগের কেউই আমাদের আসতে দিতে চায়নি, কিন্তু আমরা যেকোনোভাবেই আসতে চেয়েছি। কোপা আমেরিকা জেতার পর দলের সবাই সবসময় একসঙ্গে থাকতে চায়। এটা খুবই সুন্দর একটা বিষয়।’

উল্লেখ্য, নিজ ক্লাব অ্যাস্টন ভিলায় যোগ দিতে আজ আর্জেন্টিনা ছাড়ছেন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ ও এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া। কিন্তু তারা সরাসরি ইংল্যান্ডে যেতে পারবেন না। প্রথমে ক্রোয়েশিয়া যাবেন এ দুজন। সেখানে মুক্তভাবেই অনুশীলন করতে পারবেন তারা। পরে ক্রোয়েশিয়ায় সাতদিন থাকার পর যেতে পারবেন ইংল্যান্ডে।

আগামী শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) ভোরে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে নিজেদের নবম ম্যাচে বলিভিয়ার মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। সেই ম্যাচটি খেলা হবে না মার্টিনেজ ও বুয়েন্দিয়ার। কেননা অ্যাস্টন ভিলার সঙ্গে আগেই চুক্তি করা হয়েছিল, ৫ তারিখের ম্যাচ খেলেই ছেড়ে দিতে হবে এ দুজনকে।

You May Also Like

About the Author: