Messi PSG: মেসির জার্সি বিক্রি নিয়ে ছড়ানো তথ্যটি ভুয়া

পিএসজি লিওনেল মেসিকে নিজেদের খেলোয়াড় হিসেবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়ার ৩০ মিনিটের মধ্যে আর্জেন্টাইন তারকার সব জার্সি বিক্রি হয়ে গিয়েছিল—এ তো পুরোনো খবর। তবে যেদিন এই খবর প্রকাশ হয়েছে, সেদিন আরও এক তথ্যে সবার চোখ কপালে উঠেছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুঞ্জন চলেছে, মেসি পিএসজিতে যোগ দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাঁর ৮ লাখ ৩২ হাজার জার্সি বিক্রি হয়েছে! ইউরোপের বেশ কিছু আস্থাভাজন সংবাদকর্মী এ খবর টুইট করলেও পরে তা ভুল প্রমাণ হয়। পিএসজির বাণিজ্যিক পরিচালক ফাবিয়ান আলেগ্রে জানিয়েছেন, মেসির জার্সি বিক্রির সংখ্যা ক্লাবের অতীতের সব রেকর্ড ছাপিয়ে গেলেও তথ্যটি ভুল, ‘এসব পাগলাটে হিসাব। হ্যাঁ, অভূতপূর্ব বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু মিলিয়নের হিসাব থেকে আমরা অনেক পিছিয়ে আছি।’

মেসির ৩০ নম্বর জার্সি ঠিক কী পরিমাণ বিক্রি হয়েছে, সেই সংখ্যাটা বলেননি আলেগ্রে। শুধু বলেছেন, ‘চুক্তিটা তো খুব দ্রুত হয়েছে। আমরা এমন কিছুর জন্য প্রস্তুত ছিলাম না। উৎপাদনের সময়টা তো লাগবে। সেটা নাইকি, অ্যাডিডাস, পুমা—যে প্রতিষ্ঠানই হোক না কেন, বাজারে জার্সি ছাড়তে সবারই একই ভাবনা থাকে। আমরা তো জাদুকর নই।’ ফরাসি সংবাদমাধ্যম ‘লেকিপ’–এর সঙ্গে আলাপে আলেগ্রে জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে পিএসজির হোম এবং অ্যাওয়ে জার্সি বাজারে রয়েছে।

সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে তৃতীয় ও চতুর্থ জার্সি বাজারে ছাড়া হবে। তবে পিএসজিতে মেসি যোগ দেওয়ার পর স্বাভাবিকভাবেই তাদের পসার আরও জমতে শুরু করেছে। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, আর্জেন্টাইন তারকা ফরাসি ক্লাবটিতে যোগ দেওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যে ২ কোটি ৩৭ লাখ ইউরো আয় করেছে তারা। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’–এর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মেসি পিএসজিতে যোগ দেওয়ার ৭ মিনিটের মধ্যে দেড় লাখ জার্সি বিক্রি হয়েছে।

মেসির জার্সি বিক্রির বড় একটা অংশ পিএসজি পাচ্ছে না। এ নিয়ে নাইকির সঙ্গে ২০৩২ সাল পর্যন্ত চুক্তি রয়েছে পিএসজির। জার্সি বিক্রির টাকার ভাগ নয়, ক্রীড়া সরঞ্জাম প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে তাদের চুক্তি বছরে ৮ কোটি ইউরোর। এদিকে মেসি বার্সেলোনা ছাড়ায় কাতালান ক্লাবটির আয়েও ভাটা পড়েছে। ব্র্যান্ড ফিন্যান্সের তথ্য অনুযায়ী, মেসি যাওয়ার পর শুধু ব্র্যান্ড মূল্যেই ১৩ কোটি ৭০ লাখ ইউরো লোকসান হতে পারে বার্সার।

এর আগে সংবাদকর্মী জোনাস আদনান গিয়াভের জানান, (বাংলাদেশ সময়) রাত ৩টা ১৫ মিনিটে মেসিকে পিএসজি নিজেদের খেলোয়াড় হিসেবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়ার ৩০ মিনিটের মধ্যে তাদের অফিশিয়াল অনলাইন স্টোরে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের সব জার্সি বিক্রি হয়ে যায়। বেশ চড়া দামেই জার্সি বিক্রি করেছে পিএসজি। গোটা স্কোয়াডের মধ্যে মেসির জার্সির দামই সবচেয়ে বেশি—১৫৭.৯৯ ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় অঙ্কটা প্রায় ১৫ হাজার ৭২০ টাকা।

You May Also Like

About the Author: