পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পরেই ৭ মিনিটে বিশ্ব রেকর্ড গড়লো মেসি

বর্তমান ফুটবল বিশ্বের সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসিকে ফ্রি ট্রান্সফারে দলে ভিড়িয়ে চমকে দিয়েছে পিএসজি।
তবে ফরাসি ক্লাবটির হয়ে মাঠে নামার আগেই আসল চমক দেখাতে শুরু করে দিয়েছেন মেসি নিজেই।

আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডকে দলে ভেড়ানোর পর পিএসজির জনপ্রিয়তা আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে অনেক বেড়ে গেছে।
আদতে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্লাব এখন ফরাসি জায়ান্টরাই। আর এই সুযোগে তাদের ব্যাংক ব্যালেন্সও এখন ফুলেফেঁপে উঠেছে। শুধুমাত্র মেসির জার্সি বেচেই তাদের আয় রীতিমতো চোখ কপালে তুলে দেওয়ার মতো।

৩৪ বছর বয়সী মেসিকে দুই বছরের চুক্তিতে নিয়েছে পিএসজি। সঙ্গে মেয়াদ আরও এক বছর বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকছে।
সবমিলিয়ে মেসির পেছনে প্রতি মৌসুমে পিএসজির খরচ হবে আয়কর বাদে ৩৫ মিলিয়ন ইউরো। আর চুক্তিতে স্বাক্ষর করেই মেসি পকেটে পুরেছেন ২৫ মিলিয়ন ইউরো। বিশাল পরিমাণ অর্থ সন্দেহ নেই।

তবে পিএসজি নিশ্চয়ই আশা করছে, তাদের বিপুল পরিমাণ অর্থ খরচ বৃথা যাবে না। মেসির হাতে ধরেই আসবে তাদের প্রথম চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা। কিন্তু মেসি আসলে এরইমধ্যে তার নতুন ক্লাবটিকে লাভের মুখ দেখাতে শুরু করে দিয়েছেন। আর এই লাভ আসতে শুরু করেছে মেসির জার্সি বেচেই।

স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম ‘এএস’ জানিয়েছে, চুক্তি স্বাক্ষরের আনুষ্ঠানিক ঘোষণার পর মাত্র ৭ মিনিটেই মেসির অফিসিয়াল ৩০ নম্বর জার্সির দেড় লাখ কপি বিক্রি হয়েছে।
এরপর ‘ফুটবল এস্পানা’ হিসাব করে দেখিয়েছে, এই পরিমাণ জার্সি বেচে ক্লাবটি ওই ৭ মিনিটেই মোট ২০ মিলিয়ন ইউরো আয় করেছে। এর আগে ফুটবল ইতিহাসে এমনটি কখনই হয়নি। পিএসজিতে যোগ দিয়ে মেসি বুঝিয়ে দিলেন তার ভ্যালু কতটা।

মেসির নাম ও জার্সি নম্বর লেখা একেকটা অফিসিয়াল জার্সির গড় দাম ১৫৮ ইউরো। যদি দেড় লাখ জার্সি বিক্রি হয়, তাহলে ওই ৭ মিনিটে আসলে তাদের আয় করার কথা ২৩.৭ মিলিয়ন ইউরো। কিন্তু জার্সিগুলোর মধ্যে কিছু আবার শিশু, নারীদের জন্য আলাদাভাবে তৈরি করা হয়েছে। ফলে অংকটা ২০ মিলিয়নের মতোই হবে।

তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে, জার্সি বিক্রির পুরো অর্থ পিএসজির কোষাগারে জমা হচ্ছে না।
জার্সি প্রস্তুতকারী সংস্থা নাইকির সঙ্গে করা বর্তমান চুক্তি অনুযায়ী, প্রতি বছর তাদের কাছ থেকে ৮০ মিলিয়ন ইউরো পায় পিএসজি। ফলে এর বেশি অর্থ নাইকির ঝুলিতেই যাবে।

তবে ‘এএস’ দাবি করেছে, মেসির জার্সি বেচে যে বিপুল আয় আসছে, তা দেখে পিএসজি এখন চুক্তিতে কিছু পরিবর্তন আনার প্রস্তাব দেওয়ার কথা ভাবছে।
তবে পিএসজির প্রস্তাবে নাইকি রাজি হোক আর না হোক, মেসি কিন্তু এখন পর্যন্ত বলে একটি লাথি না মেরেও ফ্রান্সে নিজের অবস্থান জানান দিচ্ছেন।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) আর্জেন্টিনার বিশিষ্ট ক্রীড়া সাংবাদিক ও টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব ভেরোনিকা ব্রুনাতি জানান, আর্জেন্টাইন এ তারকাকে দলে ভেড়ানোর পর তার ৩০ নম্বর জার্সি বিক্রি করেই পিএসজি ও নাইকির যৌথ আয় আসবে ১ হাজার ৫৮০ মিলিয়ন ইউরো (বাংলাদেশি টাকায় ১৫ হাজার ৭২৪ কোটি টাকারও বেশি)। যা বর্তমান সময়ের হিসেবে পিএসজিতে মেসির প্রায় ৪০ বছরের আয়!

এর আগে আর্জেন্টাইন এ তারকাকে দলে ভেড়ানোর পর নিজেদের অফিসিয়াল অনলাইন স্টোরে তার ৩০ নম্বর জার্সি বিক্রির জন্য প্রদর্শন করে ফরাসি জায়ান্টরা।
৯২ পাউন্ড (বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১০,৭৩৫ টাকা) চড়া মূল্যেও রেকর্ড পরিমাণ সময়ে মাত্র ৩০ মিনিটের মাথায় জার্সিটির স্টক ফুরিয়ে যায়।

You May Also Like

About the Author: