মেসি না রোনালদো, কে সেরা? জানালেন তাদের নয় সতীর্থ

লিওনেল মেসি ও ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, এই দুই নাম তুললেই ফুটবলপ্রেমিরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে। তাঁদের মধ্যে কে সেরা? এ প্রশ্ন উঠতেই চায়ের কাপে ওঠে ‍ঝড়। শুরু হয় তর্ক-বিতর্ক! শুধু কি ফুটবলপ্রেমিরা বিভক্ত?

মোটেও না! ফুটবলের প্রাক্তন তারকারাও একই প্রশ্নের উত্তরে বিভক্ত। কেউ বলছেন মেসি সেরা, কারো উত্তর রোনালদো। তাদের নিয়ে উঠে আসা এই প্রশ্নের উত্তর একেকজন দিয়েছেন একেকভাবে। এই বিতর্ক যেন শেষ হতে চায় না।

তাঁদের দুজনের সঙ্গেই খেলেছেন এমন নয় ‍ফুটবলারের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে এই প্রশ্নের উত্তর। স্পোর্টস বাইবেল করেছে সেই কঠিন কাজটি। তাদের কার উত্তর কী? কাকে সেরা মানছেন তারা…রাইজিংবিডির পাঠকদের জন্য তা তুলে ধরা হলো

অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া
আর্জেন্টিনার জাতীয় দলে মেসির সতীর্থ। রোনালদোর সঙ্গে খেলেছেন রিয়াল মাদ্রিদে। এই উইঙ্গারের ভোট গেছে জাতীয় দলের সতীর্থ মেসির বক্সে। বর্তমানে পিএসজিতে খেলা এই উইঙ্গার মেসিকে ভোট দিলেও জানিয়েছেন, রোনালদো মেসির মতোই সমানভাবে পারদর্শী। তবে ভগ্নাংশ ব্যবধানে এগিয়ে মেসি।

ডি মারিয়া বলেন, ‘মেসি সব সময়ই সেরা। প্রত্যেক বছর সেরার মুকুট তাঁর হাতেই উঠছে। রোনালদো অসাধারণ প্রতিভাবান এবং বিশেষ খেলোয়াড়। কিন্তু মেসি ভিন্ন গ্রহের কেউ। তাকে তুলনা করা কঠিন। সে সব সময় আপনাকে মুগ্ধ করবে, চমক দেখাবে।’

কার্লোস তেভেজ

মেসির সঙ্গে খেলেছেন আর্জেন্টিনায়। আর রোনালদোর সঙ্গে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। ডি মারিয়ার মতো এই আর্জেন্টাইনের ভোটও গেছে স্বদেশি মেসির বক্সে। আর্জেন্টাইন এ ফুটবলার প্রিমিয়ার লিগের দুই শিরোপা জিতেছেন রোনালদোর সঙ্গে। একই সঙ্গে পেয়েছেন আরও কিছু শিরোপা। সে হিসেবে মেসির সঙ্গে নেই তেমন কোনো দলীয় সাফল্য। তবুও তাঁর চোখে রোনালদোর থেকে মেসিই সেরা,
‘মেসি ভিন্ন ফুটবল খেলে। যেকোনো প্রতিপক্ষের বিপক্ষে তার গোল করা মামুলী বিষয়।’
নেলসন সেমেডো

মেসির সাবেক এই বার্সেলোনার সতীর্থ রোনালদোর জাতীয় দলের সঙ্গী। কে সেরা সেই প্রশ্নে নেলসন কাউকে এগিয়ে রাখেননি। দুজনকেই সেরা বলছেন। তাঁর ব্যাখ্যা, ‘আমি দুজনের সঙ্গে খেলতে পেরে গর্বিত এবং মাঠে প্রতিটি মুহূর্ত দুজনের সঙ্গ আমি উপভোগ করেছি। আশা করছি আপনারা আমায় বুঝবেন।’
আন্দ্রে গোমেজ

সেমেডোর মতোই পর্তুগাল জাতীয় দলের আন্দ্রে গোমেজ মেসির সঙ্গে খেলেছেন বার্সেলোনায়। ভাবনার জায়গায় নেলসন সেমেডোর সুরে সুর মিলিয়েছেন গোমেজও। দুজনকে রেখেছেন একই কাতারে। এভারটনের এ মিডফিল্ডার কঠিন এ ভোটে নির্দিষ্ট কাউকে এগিয়ে রাখতে নারাজ।

২০১৬ সালে রোনালদোর সঙ্গে ইউরোর মুকুট জিতেছেন গোমেজ। এজন্য রোনালদোর প্রতি তাঁর গভীর শ্রদ্ধা। পাশাপাশি সম্মানের জায়গায় রেখেছেন প্রাক্তন ক্লাব বার্সেলোনার সতীর্থ মেসিকে। তাঁর ভাষ্য, ‘আমি দুজনের মধ্যে তুলনা এবং দুজনকে কোনো উচুঁ-নিচু জায়গায় রাখতে পারব না। আমি কখনোই এই উত্তর দিতে পারব না। পর্তুগিজ হিসেবে ক্রিস্টিয়ানোর প্রতি আমার গভীর শ্রদ্ধা রয়েছে। পাশাপাশি মেসি আমার প্রাক্তন সতীর্থ। অসাধারণ একজন খেলোয়াড়।’

জেরার্ড পিকে

মেসির বর্তমান বার্সা সতীর্থ জেরার্ড পিকে ক্যারিয়ারের শুরুতে রোনালদোর সঙ্গে খেলেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। স্পেনের হয়ে বিশ্বকাপজয়ী এই তারকার ভোট পড়েছে বর্তমান সতীর্থ মেসির পক্ষেই। রোনালদোর সঙ্গে পিকে যখন ম্যানইউতে খেলেছেন তখন ছিলেন একেবারেই তরুণ। ন্যু ক্যাম্পে মেসির সঙ্গেই তাঁর এগিয়ে চলা এবং এখানে খেলেই তারকা বনেছেন তিনি।

পিকের ভাষ্য, ‘রোনালদো অবশ্যই এ গ্রহের সেরা। তবে আমি মেসিকে এ গ্রহের কারো সঙ্গে তুলনা করি না। সে ভিন্ন গ্রহের ফুটবল খেলে।’

ইজাকুইল গ্যারে

আর্জেন্টিনায় মেসির সঙ্গে খেলেছেন। রোনালদোর সতীর্থ ছিলেন রিয়াল মাদ্রিদে। এই আর্জেন্টাইনও স্বদেশি মেসিকেই এগিয়ে রেখেছেন। তাঁর মতে, ‘কখনো কেউ আমাকে কে সেরা জিজ্ঞেস করলে আমার উত্তর হয়, লিও। আমি ওর থেকে সেরা কাউকে দেখিনি। আমি যখন অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবলে প্রথম তাকে দেখেছি তখন থেকেই সে আমার কাছে নম্বর ওয়ান। লিও’র কোনো সীমানা নেই।’

হেনরিক ল্যারসন

সুইডিশ এই তারকা মেসির সঙ্গে খেলেছেন বার্সেলোনায়। রোনালদোর সঙ্গে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে। তার কাছেও সেরার প্রশ্নে এগিয়ে মেসি ল্যারসনের মতে, ‘ক্রিস্টিয়ানোর ভাগ্য খারাপ। এ সময়ে সে মেসির সঙ্গে খেলছে। ক্রিস্টিয়ানো অবশ্যই ভালো খেলোয়াড়। কিন্তু মেসি রোনালদোর থেকে ভালো। ভিন্ন গ্রহের কেউ। অসাধারণ ফুটবল জ্ঞান। তাঁর পায়ে বল মানেই এমন কিছু সে করবে যা আপনাকে মুগ্ধ করবে। তাঁর খেলা দেখতে পারার স্বাদও ভিন্নরকম।

গ্র্যাবিয়েল হেনজি

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে রোনালদোর সঙ্গে খেলা এই আর্জেন্টাইন জাতীয় দলে খেলেছেন মেসির সঙ্গে। গ্র্যাবিয়েল দুজনের মধ্যে কোনো তুলনা টানতে নারাজ। তাঁর মতে, ‘রোনালদো হচ্ছেন এমন একজন যে কিনা নিজের সেরাটা বের করে আনতে পারেন, সেরা মুহূর্তে। অসাধারণ ধৈর্যশীল এবং বড় মনের মানুষ। নিজের লক্ষ্যে না পৌঁছানো পর্যন্ত নিজের সর্বোচ্চটা উজাড় করে দেন। এদিকে লিও’র সঙ্গে কারো তুলনা হয় না। ফুটবলের কথা বিবেচনা করলে, সে এ গ্রহের কেউ না। ব্যক্তি হিসেবে এতোটা সহজ সরল জীবন কাটায় সে, যেটা মুগ্ধ করে।’

ফার্নান্দো গ্যাগো

এই আর্জেন্টাইন জাতীয় দলে ছিলেন মেসির সতীর্থ। রোনালদোর সঙ্গে খেলেছেন রিয়াল মাদ্রিদে। স্বদেশি মেসিকেই ভোট দিয়েছেন গ্যাগো। দুজনের সেরা সময়ে গ্যাগো ছিলেন দুজনেরই সতীর্থ। তাই খুব কাছ থেকে দেখেছেন তাদের শ্রেষ্ঠত্ব। গ্যাগোর জন্য তাই মূল্যায়ন করা তুলনামূলক সহজই ছিলো।

তাঁর ভাষ্য, ‘রোনালদো এক নম্বর হতে পারে না। কারণ আমার কাছে মেসি বিশ্বের এক নম্বর খেলোয়াড়। ওর খেলার ধরন ওকে এক নম্বর বানিয়েছে। সে ফুটবলের জন্য নয়, ফুটবলই তাঁর জন্য। বল তার পায়ে আসার পর নিজ থেকেই বাকিটা হয়ে যায়। অসাধারণ প্রতিভাবান মেসি। তার খেলা দেখা চোখের জন্য তৃপ্তিদায়ক বিষয়।’

মেসি-রোনালদোর সতীর্থের চোখে এগিয়ে থাকছে মেসি। কিন্তু আপনার চোখে সেরা কে? লিওনেল মেসি নাকি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো? ঢাকা/ইয়াসিন/কামরুল

You May Also Like

About the Author: