টানা তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতেও অজিদের উড়িয়ে বাংলাদেশের রেকর্ড গড়া সিরিজ জয়

পাঁচ ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতেও অজিদের হারিয়ে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল বাংলাদেশ। শেষ টি-টোয়েন্টিতে অজিদের ১০ রানে হারিয়েছে মাহমুদউল্লাহর দল। এরই সাথে প্রথমবার অজিদের সাথে কোন ফরম্যাটে সিরিজ জিতল টাইগাররা।

এদিন আগে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেটে ১২৭ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। জবাবে অজিরা ৪ উইকেটে ১১৭ রান তুলতে সক্ষম হয়। এর ফলে সবচেয়ে কম রানে ডিফেন্ড করার রেকর্ডও আরেকবান করে বাংলাদেশ। এর আগে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ১৩১ রান করে জয় ছিল সবচেয়ে কম রানে ডিফেন্ড করা রেকর্ড

১২৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারাল অস্ট্রেলিয়া। ম্যাথু ওয়েডকে ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভাঙলেন নাসুম আহমেদ। এরপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে মিচেল মার্শকে নিয়ে ৬৩ রান যোগ করা বেন ম্যাকডারমটকে বোল্ড করেন করেন সাকিব। ফেরান ৩৫ রানে।

১৫তম ওভারে শরিফুল ইসলামকে আক্রমণে আনেন মাহমুদউল্লাহ। আক্রমণে ফিরেই সাফল্য পেলেন এই পেসার। ফেরালেন মোইজেস হেনরিকেসকে। মিড অনে শামীম হোসেনকে ক্যাচ দেওয়ার আগে ৩ বলে ২ রান করেন হেনরিকেস।

ফিফটি তুলে নেওয়া মিচেল মার্শকে ফিরিয়ে ম্যাচ ঘুরে দেন শরিফুল ইসলাম। ১৭.১ ওভারে দলীয় ৯৪ রানে চতুর্থ উইকেট পড়ল অজিদের। ১৮তম ওভারের প্রথম বলে শরিফুলকে তুলে মারতে দিয়ে মোহাম্মদ নাঈমের হাতে ক্যাচ হয়েছেন মার্শ। এরপর মোস্তাফিজ শেষ দিকে দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে অসহায় হয়ে পড়ে অজিরা। ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১১৭ রান তুলতে সক্ষম হয় তারা।

এর আগে মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে শুক্রবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় শুরু হয় ম্যাচটি। সন্ধ্যা ৬টায় শুরু হওয়ার কথা থাকলেও বৃষ্টির কারণে ম্যাচ শুরু হতে দেরি হয়। তবে ওভার কাটা হয়নি।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের শুরুটা ভালো ছিল না। দ্রুতই দুই ওপেনারকে হারিয়ে ফেলে স্বাগতিকেরা। তবে চারে নেমে দায়িত্বশীল এক ইনিংস উপহার দেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তার ৫৩ বলে ৫২ রানের ইনিংসে ভর করে ৯ উইকেটে ১২৭ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। মাহমুদউল্লাহর ইনিংসে ছিল ৪টি বাউন্ডারি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ : ১২৭/৯ (২০ ওভার)
রিয়াদ ৫২, সাকিব ২৬, আফিফ ১৯
এলিস ৩৪/৩, হ্যাজলউড ১৬/২, জাম্পা ২৪/২

অস্ট্রেলিয়া : ১১৭/৪ (২০ ওভার)
মার্শ ৫১, ম্যাকডারমট ৩৫, ক্যারি ২০*
শরিফুল ২৯/২, নাসুম ১৯/১, সাকিব ২২/১, মুস্তাফিজ ৯/০

ফল : বাংলাদেশ ১০ রানে জয়ী।

You May Also Like

About the Author: