পাওয়ার-প্লেতে অস্ট্রেলিয়ার ধারেকাছেও নেই বাংলাদেশ

৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল এখন বাংলাদেশ সফর করছে। আগামী ৩ আগস্ট থেকে শুরু হবে ব্যয়বহুল এই টি-২০ সিরিজে যে সিরিজে বিসিবির ব্যয় হচ্ছে ৬ কোটি টাকারও বেশি! অনেকটা ব্যয়বহুল হলেও ৪ বছর পরে বাঘের ডেরা অজিদের আনতে পেরেই খুশি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়া এর আগে মোট ৪ বার মুখোমুখি হলেও দুদল এবারই প্রথম মাঠে নামছে দ্বিপাক্ষিক কোনও সিরিজ খেলতে। কেননা এর আগে যে ৪ বার মুখোমুখি হয়েছিল সবগুলো ছিলো বিশ্বকাপের মঞ্চে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে অজিদের সাম্প্রতিক ফর্ম তেমন ভালো যাচ্ছেনা।

শেষ ৬ ম্যাচে অজিদের জয় কেবলমাত্র একটি। বাংলাদেশে আসার পূর্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৪-১ সিরিজ হেরে এসেছে ক্যাঙ্গারুরা। তবে এবার প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ। তবে কি জয়ের পথেই ফিরবে অ্যালেক্স ক্যারিরা? টি-২০ ক্রিকেটে বাংলাদেশে চেয়ে যোজন-যোজন এগিয়ে অজিরা। তার ভিতরে পাওয়ার প্লেতে দারুণ এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া দল। দুদলের মুখোমুখি লড়াইয়ে পার্থক্যটা এখানেই গড়ে দিতে পারে অস্ট্রেলিয়া দল।

পুরো টি-২০ ক্রিকেটের পরিসংখ্যানের কথা বাদ দিয়ে যদি শেষ ১০ ম্যাচের কথাও চিন্তা করা যায় সেখানেও দেখা যাবে পাওয়ার প্লেতে অজিরা কতটা এগিয়ে। অজিরা শেষ ১০ ম্যাচের ৭ ম্যাচে হারলেও পাওয়ার প্লেতে তারা প্রায় ৯ করে (৮.৯) ওভারপ্রতি রান তুলেছে অস্ট্রেলিয়া সেখানে বাংলাদেশ করেছে মাত্র ৭ করে! অর্থাৎ অজিদের তুলনায় প্রায় ২ রান কম করেছে বাংলাদেশ।

অজিরা যেমন ব্যাট হাতে পাওয়ার-প্লেতে দারুণ করেছে তেমনি বল হাতেও রান দিয়েছে ৮ এর কম (৭.৯)। ঠিক এখানেও পিছিয়ে বাংলাদেশ। ব্যাট হাতে ওভারপ্রতি ৭ করে রান তুললেও বল হাতে রান দিয়েছে ৭.৪৬ ইকোনমিতে। একে তো প্রচুর ব্যয়বহুল একটা সিরি, অপরদিকে দুদলের শক্তিমত্তার প্রশ্ন উঠে এসেছে বিশেষ করে পাওয়ার-প্লের দিক দিয়ে।

প্রশ্ন একটাই, জিততে পারবেকি বাংলাদেশ? কেননা এই এই সিরিজে নেই নিয়মিত ওপেনার তামিম ইকবাল ও মিস্টার ডিপেন্ডেবল খ্যাত মুশফিকুর রহিম।

You May Also Like

About the Author: