কেপিএলে খেললে ভারতে প্রবেশ করতে পারবে না বিদেশি ক্রিকেটাররা!

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পাশাপাশি বিশ্বজুড়ে দাপট দেখাচ্ছে বিভিন্ন দেশের ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) অধীনে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের পালে হাওয়া লাগিয়েছিল কাশ্মীর। তবে বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) হুমকিতে পাকিস্তান ও স্থানীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে কাশ্মীর প্রিমিয়ার লিগ (কেপিএল) আয়োজন করতে হচ্ছে টুর্নামেন্ট কতৃপক্ষকে।

কেপিএলের প্রথম আসরে বেশ কয়েকজন নামিদামি বিদেশি ক্রিকেটার দল পেয়েছিলেন। যদিও তাঁরা সবাই সাবেক ক্রিকেটার। কিন্তু বিসিসিআই সেই সব ক্রিকেটারদের ভারতে কাজ করার ও প্রবেশে করতে না দেয়ার হুমকি দেয়ার খেলা হচ্ছে না তাঁদের। যদিও টুর্নামেন্ট চালিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে আয়োজকরা।

বিসিসিআইয়ের হুমকির বিষয়টি প্রকাশ করেন কেপিএলের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকা রশিদ লতিফ। পাকিস্তানের সাবেক এই ক্রিকেটার টুইটারে লিখেন, ‘বিসিসিআই ক্রিকেট বোর্ডগুলোকে সতর্ক করে দিচ্ছে যে, যদি সাবেক খেলোয়াড়রা কাশ্মীর প্রিমিয়ার লিগে অংশ নেয়, তাহলে তাদের ভারতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে না বা ভারতীয় ক্রিকেটে কোনো স্তরে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হবে না।’

সাবেক ক্রিকেটারদের মাঝে কেপিএলের এবারের আসরে দল পেয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার তিলকারত্নে দিলশান, দক্ষিণ আফ্রিকার হার্শেল গিবস ও ইংল্যান্ডের চার ক্রিকেটার। সেই তালিকায় ছিলেন ম্যাট প্রিয়র, মন্টি পানেসার, ফিল মাস্টার্ড ও ওয়াইস শাহর মতো ইংলিশ ক্রিকেটাররা।

বিদেশি ক্রিকেটারদের নিয়ে বিসিসিআইয়ের হুমকির বিষয়টি স্বীকার করেছেন আয়োজক কমিটির এক কর্মকর্তা। যিনি নিশ্চিত করেছেন যে, ইসিবি ও সিএসএকে তাঁদের সাবেক ক্রিকেটার পাঠাতে নিষেধ করেছে বিসিসিআই। তাঁরা উভয় বোর্ড বিসিসিআইয়ের দাবিতে সম্মত হয়েছে। ফলে স্থানীয় ক্রিকেটারদের দিয়ে পূরণ করা হবে তাঁদের জায়গা।

এ প্রসঙ্গে সেই কর্মকর্তা বলেন, ‘বিসিসিআই ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা (সিএসএ) এবং ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডকে (ইসিবি) তাদের সাবেক খেলোয়াড়দের লিগে অংশ না নিতে বলেছিল। উভয় বোর্ড বিসিসিআইয়ের দাবিতে সম্মত হয়েছে। অতএব, স্থানীয় ক্রিকেটাররা এখন বিদেশি ক্রিকেটারদের স্থলাভিষিক্ত হবে।’

আগামী ৬ আগস্ট মাঠে গড়াবে কেপিএলের প্রথম আসর। ১০ দিনের এই টুর্নামেন্টে খেলবে মোট ৬টি দল। দলগুলো হলো, রাওয়ালকোট হকস, বাঘ স্ট্যালিয়েন্স, মুজাফফরাবাদ টাইগার্স, মিরপুর রয়্যালস, কোটলিউ প্যান্থার্স এবং ওভারসিস ওয়ারিয়র্স।

You May Also Like

About the Author: